Home সমস্যা ও সম্ভাবনা মাদারগঞ্জে নদী ভাঙ্গনে বিলীন বসতভিটা, ভাঙ্গা হচ্ছে বিদ্যালয়

মাদারগঞ্জে নদী ভাঙ্গনে বিলীন বসতভিটা, ভাঙ্গা হচ্ছে বিদ্যালয়

by বাংলা টুডে ডেস্ক
Published: Last Updated on ৪৭ views


শুভ্র মেহেদী, জামালপুর:
উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলায় দেখা দিয়েছে নদী ভাঙ্গন। গেলো তিন সপ্তাহে নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে অর্ধশতাধিক বসতভিটা, ঈদগা মাঠ, গুচ্ছগ্রামসহ ফসলি জমি।

ঝুঁকিতে রয়েছে নদী তীরবর্তী একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ শতাধিক বসতবাড়ি আর ফসলের মাঠ। স্থানীয়দের অভিযোগ বাঁধ না থাকায় নদী ভাঙ্গনের শিকার হয়ে আসছে বছরের পর বছর ধরে।


প্রতিনিয়ত নদীর পাড় ভেঙ্গে আছড়ে পড়ছে যমুনার বুকে, সেইসাথে নদীর বুকে হারিয়ে যাচ্ছে যমুনা তীরবর্তী শত শত পরিবারের স্বপ্নগুলোও। উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলার চরপাকেরদহ ইউনিয়নের পাকরুল এলাকায় দেখা দিয়েছে তীব্র নদী ভাঙ্গন।

টানা তিন সপ্তাহ ধরে অব্যাহত ভাঙ্গনে ইতিমধ্যেই যমুনার বুকে বিলীন হয়েছে অর্ধশতাধিক বসতবাড়ি, পাকরুল ঈদগা মাঠ, পাকরুল গুচ্ছগ্রাম, আশ্রয়ন কেন্দ্রসহ ফসলি জমি। বসতভিটা হারানো মানুষগুলোর ঠাঁই হয়েছে এখন খোলা আকাশের নিচে। অনেকেই আবার আশ্রয় নিয়েছে অন্যের জমিতে। এদিকে ভাঙ্গন ঝুঁকিতে থাকায় ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে পাকরুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টিও।

এছাড়াও ভাঙ্গন অব্যাহত থাকায় ঝুঁকিতে রয়েছে নদী তীরবর্তী শতাধিক বসতভিটা, শত শত একর ফসলি জমিসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা। নদীতে বাঁধ না থাকায় গত দু’বছরের ভাঙ্গনে বসতভিটা হারিয়ে নিঃস্ব হয়েছে প্রায় তিনশ পরিবার।

যমুনা নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে দেড়শ একর ফসলি জমি। স্থানীয়দের অভিযোগ, নদীর পাড় রক্ষায় কোন বাঁধ নির্মাণ না করায় প্রতি বছর পাকরুল এলাকার মানুষ নদী ভাঙ্গনে শিকার হচ্ছে। সর্বস্ব হারিয়ে নিঃস্ব হচ্ছে শত শত পরিবার। তাই ভাঙ্গন ঠেকাতে দ্রুত সময়ের মধ্যে বাঁধ নির্মানের দাবি ভুক্তভোগীদের।


জামালপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ আবু সাঈদ জানান, জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ থেকে সরিষাবাড়ী পর্যন্ত চার উপজেলায় ৯০ কিলোমিটার নদীর তীর রয়েছে। এরমধ্যে ভাঙ্গন প্রবণ ২২ কিলোমিটার নদীর তীর বাঁধ দেওয়া হয়েছে এবং সোয়া ৬ কিলোমিটারের কাজ চলমান।

ঝুঁকিপূর্ণ বাকী নদীর তীর প্রয়োজনীয় সমিক্ষা চালানোর জন্য প্রকল্প অনুমোদন হয়েছে।
যমুনার ভাঙ্গন প্রতিরোধে দ্রুতই কার্যকর ব্যবস্থা নিবে কর্তৃপক্ষ এমনটাই প্রত্যাশা নদী তীরবর্তী মানুষের।

আরো পড়ুন

সম্পাদক: শুভ্র মেহেদী

মোবাইল: ০১৯৮৫৮২৭৮৩০
ই-মেইল: jamalpur.banglatoday.2022@gmail.com

মিডিয়া ক্যাম্পাস, পৌরসুপার মার্কেট (২য় তলা), রানীগঞ্জ বাজার, তমালতলা, জামালপুর।

Developed by Media Text Communications