Home ফিচার ভ্রমণে সঙ্গে রাখতে হয় যেসব গ্যাজেট

ভ্রমণে সঙ্গে রাখতে হয় যেসব গ্যাজেট

by বাংলা টুডে ডেস্ক
২৪ views

আইটি ডেক্স:

প্রযুক্তির বদল এখন আর আমাদের চমকে দেয় না। বলা যায়, প্রযুক্তি আমাদের প্রতীক্ষার প্রহর বাড়ায়। অবশ্য এখন আমরা জীবন সহজ করার প্রযুক্তি খুঁজি। আমাদের মনে কেন যেন এক ধরনের বিশ্বাস রয়েছে, অনলাইনে খুঁজলেই যেকোনো প্রয়োজনের টেক সলিউশান মিলবে। এমন চাহিদা বাড়ে কোনো ট্যুর দেওয়ার আগে।

আমরা এখন ভীষণ ব্যস্ত। এতটাই ব্যস্ত, ঘুরতে গেলেও টুকিটাকি কাজ করার চিন্তা করি। সেজন্য ঘুরে বেড়াতে গেলেও সঙ্গে রাখতে হয় গ্যাজেট। এসব গ্যাজেট শুধু কাজ করার সুবিধা দেয় তা কিন্তু নয়। আপনার নিরাপত্তা এবং বিভিন্ন বিপদ সামাল দেওয়ার সুযোগও গড়ে দেয়। এখন আপনি আমায় প্রশ্ন করতেই পারেন, শুধু ঘোরাঘুরির জন্যেই গ্যাজেট কিনবো!

আপনার প্রশ্ন করার কারণও যুক্তিযুক্ত। এসব গ্যাজেটের দামও বেশি আর আপনি তো রোজ রোজ ঘুরতে যাবেন না। কিন্তু এসব গ্যাজেট আপনার প্রতিদিনের জীবনেও নানাভাবে ব্যবহারের সুযোগ আছে। সেসব তো আলোচনায় থাকবেই। তবে ঘুরতে গেলে কয়েকটি গ্যাজেট সঙ্গে রাখতে পারলে দিনশেষে আপনারই উপকার হবে।

কোন গ্যাজেটগুলোর কথা বলছি? চলুন, দেখেই নেওয়া যাক।
পাওয়ার ব্যাংক
আজকাল স্মার্টফোনের ব্যাটারি অনেক বড় হয়েছে। কোনো কোনো ফোনে তো ৭০০০সধয এর ব্যাটারিও রয়েছে। কিন্তু ব্যাটারি বড় হওয়া মানে এই নয় বড় ব্যাটারি পুরো একদিনই আপনায় সাপোর্ট দিবে। আপনার ব্যবহারের উপর ব্যাটারির চার্জ নির্ভর করে। ভ্রমণের সময় নানা কারণে স্মার্টফোন ঘন ঘন ব্যবহার করতে হয়। আপনার ফোনে মোবাইল ডাটা চালু থাকে, বারবার গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় কল করতে হয় আবার মোবাইলে নানা অ্যাপ অথবা ফ্ল্যাশ লাইটের ব্যবহারের পাশাপাশি ক্যামেরা থাকে ব্যস্ত। এখনকার স্মার্টফোনের ওএসও থাকে ভারি। ডাটা অন থাকলে ব্যাকগ্রাউন্ডে প্রচুর চার্জ খুইয়ে দেয়। এভাবে অনেক সক্ষম ব্যাটারি থাকার পরও ঘুরতে গেলে আপনাকে একবার চার্জ দেওয়ার কথা ভাবতেই হয়। পাওয়ার ব্যাংক থাকলে কিন্তু এতকিছু ভাবতে হবে না। বাজারে অনেক ধরনের পাওয়ার ব্যাংক আছে। আমরা মূলত কতটুকু ব্যাটারি আছে এসব দেখে পাওয়ার ব্যাংক কিনি। অথচ এখন পাওয়ার ব্যাংকে নানা ধরনের গুরুত্বপূর্ণ ফিচার সংযুক্ত হয়েছে। আপনি ভোল্টেজ নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন এবং চার্জ আউটপুট অনুসারে মোবাইলে চার্জ দিতে পারবেন। এভাবে আপনার মোবাইলের ব্যাটারিতে বাড়তি চাপ পড়বে না। পাওয়ার ব্যাংকটা চার্জার ব্যবহারের চেয়ে ভালো কারণ দেশের সবখানে চার্জ আউটপুট এক নয় এবং আজকাল ফোনের চার্জ যদি সঠিক আউটপুটে চার্জ সরবরাহ করতে না পারে তাহলে আপনার ফোনের ব্যাটারির ক্ষতি হবে। সেজন্য আপনার ফোনের মডেলের সঙ্গে উপযুক্ত পাওয়ার আউটপুটসহ পাওয়ার ব্যাংক কেনার চেষ্টা করুন। পাওয়ার ব্যাংক কেনার ক্ষেত্রে যা যা করনীয় তা নিয়ে বিস্তারিত অন্য একদিন লিখবো।
নয়েজ ক্যান্সেলিং ইয়ারফোন
যাত্রাপথে একটি ভালো ইয়ারফোন কতটা জরুরি তা সবিস্তারে ব্যাখ্যা করার খুব বেশি প্রয়োজন নেই। আপনি ঘুরতে যাচ্ছেন। এ সময় যাত্রাপথে একঘেঁয়েমি দূর করার জন্য একটা ভালো হেডফোন কিংবা ইয়ারফোন রাখতেই হবে। এটি আপনার ফোনের নিরাপত্তার জন্যও জরুরি। যাত্রাপথে বারবার পকেট থেকে মোবাইল বের করে কল রিসিভ করা বা কিছু শোনা জটিলই। আবার জানালার পাশে বসে কানে মোবাইল ধরে রাখলে ছোঁ মেরে ছিনতাইয়ের ঘটনার জন্য বাড়তি উদ্বেগ থাকেই। সেজন্য একটি হেডফোন বা ইয়ারফোন থাকলে এ সমস্যা অনেকাংশে দূর হয়। আজকাল হেডফোন বা ইয়ারফোনে কিছু বাটন দিয়ে গান বদল, চালু করা, কল করার সুবিধাও রয়েছে। কিন্তু বাইরে ঘুরাঘুরি বা দৈনন্দিন জীবনে নয়েজ ক্যান্সেলিং হেডফোন জরুরি। নয়েজ ক্যান্সেলিং হেডফোন কানে থাকলে চারপাশের শব্দ আপনার কানে আসবে না। এতে আপনার বাড়তি সুবিধা হলো ভ্রমণের সময় জরুরি কল করার সময় আপনি যেমন কোনো বিঘœ ছাড়াই কথা শুনতে পাবেন তেমনি ভ্রমণের সময় চারপাশের শব্দ আপনায় বিরক্ত করা ছাড়াই মিডিয়া উপভোগ করার সুযোগ করে দেবে।
ইউনিভার্সাল ট্রাভেল অ্যাডাপ্টার
ভ্রমণের সময় আপনার সঙ্গে থাকা যেকোনো গ্যাজেটের ব্যাটারি কিংবা পাওয়ার পোর্ট রক্ষার জন্য ট্রাভেল অ্যাডাপ্টার জরুরি। শুধু ভ্রমণের সময় জরুরি এমন নয়। বাসা বদল করলে কিংবা আপনার অফিসে কোনো পোর্ট ব্যবহারের সময়েও ইউনিভার্সাল ট্রাভেল অ্যাডাপ্টার অনেক কাজে আসতে পারে। যদিও আমাদের মধ্যে ডিভাইসের পাওয়ার অপশানের নিরাপত্তা নিয়ে ভাবনা অনেক কম।
ওয়াটার পিউরিফিকেশন বোতল
ভ্রমণের সময় হাইড্রেটেড থাকা জরুরি। যারা পাহাড়ে ভ্রমণ করতে যান তাদের পানি পান করতে হয় প্রচুর। কিন্তু অঞ্চলভেদে পানির মান নিয়ে দুর্ভাবনা তো এড়িয়ে যাওয়ার নয়। পানির গুণগত মানের তারতম্যের কারণে পেট খারাপ থেকে শুরু করে নানা শারীরিক সমস্যা হতে পারে। সেজন্য ভ্রমণের সময় ওয়াটার পিউরিফিকেশন বোতল সঙ্গে রাখা জরুরি। দৈনন্দিন জীবনেও এটি অনেক কার্যকর। এ ধরনের বোতল আকারে ছোটখাটো হলেও পানি পরিশোধনের উপযুক্ত ইউভি রে এবং ফিল্টারিং মেকানিজম রয়েছে। মূলত বড় ফিল্টারের সঙ্গে এ ফিল্টারের ফারাক হলো, ওয়াটার পিউরিফিকেশন বোতল সামান্য পরিমাণ পানি ফিল্টার করে। তবে ভ্রমণের হিসেব করলে সেটুকুও যথেষ্ট। বাজারে এ ধরনের বোতলের জনপ্রিয়তা আস্তে আস্তে বাড়তে শুরু করেছে। কিন্তু এখনও গ্যাজেটটির দাম একটু বেশির দিকে। সে হতেই পারে। একটু ভেবে দেখলে বুঝতে পারবেন সহজেই, আপনার দৈনন্দিন জীবনেও এমন বোতল থাকলে পানির মান নিয়ে দুশ্চিন্তা আর করতে হচ্ছে না।
ই-রিডার
ভ্রমণের সময় অনেকেই একদাগা বই বহন করেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর পড়া হয় না। সময়টা তো আর মেলেনা। মোবাইলে বই পড়ার কিছু অসুবিধা রয়েছে-চোখে ভীষণ বাজে প্রভাব ফেলে। সেজন্য একটা ই-রিডার কিনে নিতে পারলে অতকিছু ভাবতে হয় না। অ্যামাজন কিন্ডলসহ বাজারে অনেক ধরনের ই-রিডার কিনতে পাওয়া যায়। এসব গ্যাজেটের সবচেয়ে বড় সুবিধা যে ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয় তাতে আলো জ¦ললেও চোখের ক্ষতি করে না। ব্লু লাইট নির্গত হওয়ার সম্ভাবনাও কম। কিন্ডলে সচরাচর ই-ইংক ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়। আবার কিছুকিছু ই-রিডারে টিএফটি ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়। প্রশ্ন হচ্ছে, কোনটি ভালো? অবশ্যই ই-ইংক ডিসপ্লে। টিএফটি ডিসপ্লে অনেকটা আইপিএস ডিসপ্লের মতো। কমদামি ই-রিডারে টিএফটি ডিসপ্লে পাওয়া যায়। তাই কেনার সময় ডিসপ্লের ধরনটি দেখে নিবেন অবশ্যই।
ট্রাভেল পিলো
বাস কিংবা গাড়ি ভ্রমণ যেভাবেই করুন আপনাকে বসে পথ পাড়ি দিতে হবে যদি না স্লিপিং কোচে ঘুরতে যান। আবার গাড়ির সিট যদি আপনাকে সে সুযোগ দেয় তাহলে একটু কাঁত হওয়ার সুযোগ আছে। সমস্যা হলো, গাড়িভর্তি মানুষ হলে অনেক সময় সে কাজটিও করা যায় না। আর ঘুরতে গেলেও অনেকের ঘুম আসে। আবার ক্লান্তি দূর করার জন্যও ঘুম অপরিহার্য। কিন্তু বেকায়দা ঘুমের ফলে ঘাড়ে সমস্যা হতে পারে। সেক্ষেত্রে ট্রাভেল পিলো সঙ্গে রাখা জরুরি। বাজারে ইউ-শেপের অনেক ট্রাভেল পিলো পাবেন। এগুলো বহন করা সহজ কারণ ব্যবহারের পর ভাঁজ করে ফেলা যায়। ট্রাভেল পিলো কেনার সময় কম্ফোর্ট আর ফ্যাবরিকের মান দেখে কেনা জরুরি। নাহলে অস্বস্তি লাগতে পারে।
স্মার্ট লাগেজ
স্মার্ট লাগেজ এখনও এতটা প্রচলিত হয়নি বলে দাম একটু বেশি। যদিও বাজারে স্মার্ট লাগেজ খুঁজলেই পাওয়া যাবে। অনেকেই হয়তো ভাবছেন, লাগেজ স্মার্ট হওয়ার কি আছে! স্মার্ট লাগেজের ভেতরে অনেক ভাগ রয়েছে। কোথায় স্মার্ট গ্যাজেট রাখবেন, কোথায় তরল পণ্য বহন করবেন, কোথায় কাপড় কম জায়গায় বেশি করে রাখতে পারবেন এমনকি ভেতরে পাওয়ার ব্যাংক থাকলে একটি ক্যাবল ব্যাগের ভেতর থেকে বের করার সুযোগ আছে-এরকম অনেক ফিচারসমৃদ্ধ একটি পণ্য স্মার্ট লাগেজ। যারা ক্যামেরা বা ল্যাপটপ বহন করেন তাদেরও আলাদা করে আর ব্যাগ নিতে হয় না। মোদ্দা কথা, আপনার হাতে বহন করা গ্যাজেটের সংখ্যা অনেকটাই কমিয়ে আনতে সাহায্য করে স্মার্ট লাগেজ।

আরো পড়ুন

সম্পাদক: শুভ্র মেহেদী

মোবাইল: ০১৯৮৫৮২৭৮৩০
ই-মেইল: jamalpur.banglatoday.2022@gmail.com

মিডিয়া ক্যাম্পাস, পৌরসুপার মার্কেট (২য় তলা), রানীগঞ্জ বাজার, তমালতলা, জামালপুর।

Developed by Media Text Communications