Home বিনোদন যে কারণে ক্ষমা চাইলেন তানজিন তিশা

যে কারণে ক্ষমা চাইলেন তানজিন তিশা

by বাংলা টুডে ডেস্ক
১৭৬ views

বিনোদন ডেস্ক:

গত কয়েকদিন ধরেই আত্মহত্যা চেষ্টার ইস্যুতে খবরের শিরোনামে রয়েছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী তানজিন তিশা। অভিনেতা মুশফিক আর ফারহানের সঙ্গে প্রমের সম্পর্কের জেরেই নাকি আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন তিনি। যদিও এই বিষয়টি পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন তিশা। তিশার আত্মহত্যার চেষ্টার খবর ছড়িয়ে পড়তেই বেশ আলোচনার সৃষ্টি হয় শোবিজ অঙ্গনে। রীতিমতো শোরগোল পড়ে যায়।

তবে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেই ফেসবুকে লাইভে এসে অভিনেত্রী জানান, ফুড পয়জনিংয়ে অসুস্থ হয়ে যাওয়ায় হাসপাতালের শরণাপন্ন হন তিনি। এবার সাংবাদিকদের কাছে ক্ষমা চাইলেন তিশা। শনিবার নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিশা। ওই পোস্টেই সাংবাদিকদের কাছে ক্ষমা চান এই অভিনেত্রী। পাশাপাশি গুজবে কান না দেওয়ার অনুরোধও জানান তিনি।

পাঠকদের সুবিধার জন্য তিশার পোস্টটি হুবহু তুলে ধরা হলো- বিগত কয়েকদিনের অসুস্থতা এবং আমার পারসোনাল লাইফ নিয়ে নানান ভিত্তিহীন কথা ও সংবাদ এবং পরিচিত ওপরিচিত বিভিন্ন ফোন কলে আমি অনেকটাই মেন্টালি পাজলড ছিলাম। এমন সময়ে এক সাংবাদিক ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে আমি নিজের উপর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উত্তেজিত হয়ে কিছু কথা বলে ফেলি যা আসলে ইনটেনশনালি ছিলো না।

সাংবাদিক ভাইদের উদ্দেশে একটা কথা আমি বলতে চাই, আমার সফলতার একটা অংশজুড়ে আপনারাও আছেন এবং আপনাদের প্রতি আমার শ্রদ্ধা ও সন্মান সমসময়ই ছিল এবং থাকবে। আমার অনাকাক্সিক্ষত কথায় আপনারা কষ্ট পেয়ে থাকলে তা ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। সবার উদ্দেশে আমার একটাই কথা আপনারা আমাকে আমার কাজ ও আপনাদের ভালোবাসায় এতদূর এনেছেন এবং ভবিষ্যতেও কোনো প্রকার গুজবে কান না দিয়ে আমার কাজ ও আমাকে ভালোবেসে যাবেন।

আপনাদের সবার দোয়াতে আমাকে রাখবেন। প্রসঙ্গত, গত ১৫ নভেম্বর মধ্যরাতে রাজধানীর রাজারবাগে নিজ বাসায় ঘুমের ওষুধ সেবন করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন তিশা। পরে তাকে উদ্ধার করে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

১৬ নভেম্বর চিকিৎসা শেষে বাসায় ফেরেন এই অভিনেত্রী। বর্তমানে সুস্থ আছেন তিশা। তবে এই ঘটনায় উঠে এসেছে মুশফিক আর ফারহানের নাম।

আরো পড়ুন

সম্পাদক: শুভ্র মেহেদী

মোবাইল: ০১৯৮৫৮২৭৮৩০
ই-মেইল: jamalpur.banglatoday.2022@gmail.com

মিডিয়া ক্যাম্পাস, পৌরসুপার মার্কেট (২য় তলা), রানীগঞ্জ বাজার, তমালতলা, জামালপুর।

Developed by Media Text Communications