rockland bd

সিলেটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ বুধবার, ব্যাপক প্রস্তুতি

0

সিলেট, বাংলাটুডে টোয়েন্টিফোর ডটকম

নবগঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সিলেটে প্রথম জনসভা ঘিরে ব্যাপক প্রস্তুতি চলছে। আগামীকাল বুধবার বেলা ২টায় সিলেট নগরীর ঐতিহাসিক রেজিস্ট্রারি মাঠে এ জনসভা থেকেই নতুন কর্মসূচি দেবেন নির্বাচনকালীন সরকার বিরোধী জাতীয় জোটের নেতারা। আর এ জনসভায় জনতার ঢল নামবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন ড. কামাল হোসেনে নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতারা।

এদিকে সোমবার থেকে জনসভাস্থলে মঞ্চ নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। এদিন সকালে জেলা ও মহানগর বিএনপির শীর্ষ নেতাদের উপস্থিতিতে শুরু হয় মঞ্চ নির্মাণ কাজ। এ সময় বাঁশ-কাঠসহ সরঞ্জামাদি নিয়ে মঞ্চ প্রস্তুত করতে থাকেন শ্রমিকরা। মঙ্গলবার বিকেলের মধ্যেই মঞ্চ নির্মাণ পুরোপুরি শেষ হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

গত ১৩ অক্টোবর জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আত্মপ্রকাশ হওয়া নতুন এ জোটে বিএনপি ছাড়াও রয়েছে জেএসডি, নাগরিক ঐক্য এবং গণফোরাম। ২৪ অক্টোবর সিলেটে জনসভার মধ্য দিয়ে এ জোটের কর্মসূচি শুরু হচ্ছে।

সিলেটের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে জনসভায় প্রধান অতিথি থাকবেন গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। এতে প্রধান বক্তা থাকবেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এছাড়া ঐক্যফ্রন্টের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।

এদিন সিলেটে হজরত শাহজালাল ও শাহপরাণ (রহ.) মাজার জিয়ারতও করবেন ঐক্যফ্রন্টের নেতারা।
এদিকে, সমাবেশ ঘিরে সিলেট বিএনপির নেতাকর্মীরা ব্যাপক প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ইতোমধ্যে একাধিক বৈঠকও করেছেন তারা। এছাড়া সমাবেশ সফলে জেলা ও মহানগরের পক্ষ থেকে জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সবশেষ পুলিশের অনুমতি পাওয়ায় পর তারা পুরোদমে কাজ শুরু করেছেন।

মঙ্গলবার সকালে নগরীর কোর্ট পয়েন্ট থেকে লিফলেট বিতরণের মাধ্যমে প্রচারনা শুরু করেন বিএনপি নেতাকর্মীরা। সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র আবুল কাহের শামীম জানান, সমাবেশের অনুমতি লাভের পর সোমবার থেকে রেজিস্ট্রারি মাঠে মঞ্চ নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। এছাড়া প্রস্তুতি সভাও সম্পন্ন হয়েছে। ২৪ অক্টোবর জনসভায় নগরজুড়ে জনগণের ঢল নামবে বলেও আশা করেন তিনি।

এর আগে দুই দফায় অনুমতি চাওয়া হলেও তা প্রত্যাখ্যান হয়ে ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে হাইকোর্টে রিট করা করা হয়। প্রথম দিকে ২৩ অক্টোবর সমাবেশ আয়োজনের কথা থাকলেও অনুমতি না পাওয়ায় একদিন পর ২৪ অক্টোবর নতুন তারিখ নির্ধারিত হয়। ১৭ অক্টোবর সিলেট বিএনপির ৫ নেতা সমাবেশের অনুমতি চেয়ে আবেদন করেছিলেন। তবে নিরাপত্তাজণিত কারণ দেখিয়ে সমাবেশের অনুমতি প্রদান করেনি প্রশাসন।

একই ভাবে গত শনিবার আবেদন করা হয়েছিল। তবে অনুমতি না মেলায় রোববার রিট করেন ঐক্যফ্রন্টের নেতারা। সোমবার ওই রিটের শুনানি হওয়ার কথা ছিল। তবে এর আগেই রোববার সন্ধ্যায় ১৪ শর্তে সমাবেশের অনুমতি প্রদান করে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার পরিতোষ ঘোষ জানান, ‘১৪ শর্তে রেজিস্ট্রারি মাঠে জনসভার অনুমতি দেয়া হয়েছে। তবে নির্ধারিত শর্ত ছাড়াও জনসভার দিনে নগরে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে বাড়তি নিরাপত্তা বেষ্টনি থাকবে।’

এদিকে, গত সোমবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীম, মহানগরের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকি, জেলার সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ ও মহানগরের ভারপাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আজমল বখত চৌধুরী সাদেক বিএনপির নেতাকর্মী ও সিলেটবাসীকে সমাবেশ সফলের আহবান জানানোর পাশাপাশি সমাবেশে জেলা বিএনপির আওতাধীন সকল উপজেলা ও পৌর শাখা এবং মহানগরের আওতাধীন সকল ওয়ার্ড শাখার নেতৃবৃন্দকে নিজ নিজ শাখার ব্যানারসহ মিছিল সহকারে সমাবেশস্থলে উপস্থিত থাকার আহবান জানিয়েছেন।

এছাড়া সমাবেশকে কেন্দ্র করে সমাবেশস্থলের আশপাশে কোনো ব্যক্তির নামে পোস্টার, ব্যানার, প্লেকার্ড ও ফেস্টুন বহন না করা ও না সাটাতে এবং তোরণ নির্মাণ না করারও অনুরোধ জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ।-ইউএনবি

এবিএস

Comments are closed.