rockland bd

জলবায়ু ঝুঁকি মোকাবেলায় ২০০ কোটি ডলার দেবে বিশ্বব্যাংক

0

বাংলাটুডে২৪ রিপোর্ট :
জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ঝুঁকি মোকাবেলায় ২০০ কোটি ডলার দেবে বিশ্বব্যাংক। আজ মঙ্গলবার বিকেল ৫টার দিকে বিশ্বব্যাংকের ঢাকা কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়াং কিম।
উন্নয়ন প্রকল্পে দুর্নীতির বিষয়ে কোনো ছাড় না দেওয়ার হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়াং কিম বলেছেন, দুর্নীতির প্রশ্নে আমাদের অবস্থানের কোনো পরিবর্তন হয়নি। এক্ষেত্রে বিশ্বের যে কোনো দেশের ক্ষেত্রে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি চলমান রয়েছে। ভবিষ্যতেও এ বিষয়ে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না।
মঙ্গলবার বিশ্বব্যাংকের বাংলাদেশ কার্যালয়ে আয়োজিক এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।
পদ্মাসেতু প্রকল্পে দুর্নীতির অভিযোগে প্রতিশ্রুতি প্রত্যাহার করে নেয় বিশ্বব্যাংক। ভবিষ্যতে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নের প্রকল্পগুলোতে কোনো
দুর্নীতি হলে কি করা হবে এমন প্রশ্নের জবাবে জিম ইয়াং কিম বলেন, বাংলাদেশে আমাদের অনেকগুলো প্রকল্প চলমান রয়েছে। সেগুলো আমরা পর্যবেক্ষণ করছি। এক্ষেত্রে কোনো প্রকার অনিয়ম-দুর্নীতি যেন না হয়, সে বিষয়ে সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি।
সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশের অর্থনীতির ভূয়সী প্রসংসা করে তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতির ভবিষ্যৎ খুবই উজ্জল। বাংলাদেশ অনেকগুলো লক্ষ্যকে সামনে নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। এক্ষেত্রে সপ্তম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা বাস্তবায়নে বেশকিছু পদক্ষেপ বাংলাদেশ হাতে নিয়েছে, যা ইতিবাচক।
যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে বিশ্বব্যাংক-আইএমএফের বার্ষিক সম্মেলন শেষ করেই তিনি ঢাকায় আসেন। এর আগে ২০০৭ সালে বাংলাদেশে এসেছিলেন বিশ্বব্যাংকের তখনকার প্রেসিডেন্ট রবার্ট জোয়েলিক।
মঙ্গলবার বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ রাকুদিয়া গ্রামে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে পরিচালিত সোশ্যাল ডেভেলপমেট ফাউন্ডেশনের (এসডিএফ) ‘নতুন জীবন’ প্রকল্প পরিদর্শন করেন সংস্থাটির প্রেসিডেন্ট।
উল্লেখ্য, দারিদ্র্য বিমোচনে বাংলাদেশের সাফল‌্য দেখতে গত রোববার বিকেলে ঢাকায় পৌঁছান বিশ্বব‌্যাংকের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম। হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

Comments are closed.