rockland bd

বামদের সঙ্গে ‘মিনিমাম পয়েন্টে ম্যাক্সিমাম ইউনিটি’ চান কাদের

0

ডেস্ক প্রতিবেদন, ঢাকা-


বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টিসহ (সিপিবি) বামপন্থী দলের সঙ্গে ঐক্য চেয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, ‘আজকে একটি বিষয় ভালো লাগছে যে বামপন্থীরা এক সুরে কথা বলছেন। সেটি হচ্ছে সাম্প্রদায়িক শক্তির সঙ্গে তাঁরা নেই। এই উচ্চারণ যাঁরা করেছেন, আসুন না আমরা মিনিমাম পয়েন্টে ম্যাক্সিমাম ইউনিটি গড়ে ফেলি, অসুবিধাটা কোথায়?’

আজ মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের ৫১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে ওবায়দুল কাদের এ আহ্বান জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কমিউনিস্ট পার্টির নেতৃত্বাধীন আটদলীয় জোটের অনেকের সঙ্গে আমরা একসঙ্গে ছাত্ররাজনীতি করেছি। তাঁদের আদর্শের প্রতি আমার কোনো অশ্রদ্ধা নেই। এখানে মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু এই প্রশ্নে আসুন আমরা ঐক্যবদ্ধ হই।’
ঐক্যের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমরা পরিষ্কারভাবে বলতে চাই, আমরাও জাতীয় ঐক্য চাই। আমরা জাতীয় ঐক্য চাই সাম্প্রদায়িক অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে। আমরা জাতীয় ঐক্য চাই স্বাধীনতার শত্রুদের বিরুদ্ধে। আমরা জাতীয় ঐক্য চাই নষ্ট রাজনীতির বিরুদ্ধে। আমরা জাতীয় ঐক্য চাই দুর্নীতিসন্ত্রাসের বিরুদ্ধে। আমরা জাতীয় ঐক্য চাই মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তির সঙ্গে। এ দেশের জন্মের চেতনা নিয়েই আমরা জাতীয় ঐক্য চাই।’

নির্বাচন সামনে রেখে ছক করে নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার করছে সরকার বিএনপির এই অভিযোগের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ইতিহাসটা দেখুন। ফেরিতে প্লেট চুরির জন্য আমাদের নেতাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছিল কারা? কত মামলা নিয়ে আমরা নির্বাচনে গিয়েছি? আমাদের হাজার হাজার নেতা-কর্মী বাড়িছাড়া। সাধু সাজে কারা? কত মামলায় তারা আমাদের জর্জরিত করেছে?’ তিনি আরও বলেন, ‘অন্যায়ভাবে মামলা হোক, তা আমরা চাই না। এখন যে মামলা হয়েছে, পুলিশ বলছে, তারা আন্দোলনের নামে নাশকতার ছক আঁকছে, পুলিশের কাছে তথ্য আছে। পুলিশ বলছে, তারা ২০১৪ সালের মতো সন্ত্রাসী তৎপরতার পরিকল্পনা তৈরি করছে গোপনভাবে। তথ্য তো আমাদের কাছে না, জানবে পুলিশ, গোয়েন্দারা। এ ধরনের অভিযোগে পুলিশ যদি কারও বিরুদ্ধে মামলা করে, এটা কি হয়রানিমূলক মামলা হবে?’

সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়ার সভাপতিত্বে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে দলটির নেতারা বক্তব্য দেন।

বাংলাটুডে২৪/আর এইচ

Comments are closed.