rockland bd

রাসেলের সফল অস্ত্রোপচার সম্পন্ন

0

ঢাকা: রাজমিস্ত্রির কাজ করতে গিয়ে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে শরীরের প্রায় অর্ধেক অংশ ঝলসে যাওয়া রাসেলের (২০) সফল অস্ত্রোপচার হয়েছে। অস্ত্রোপচারের প্রায় ৮ ঘণ্টা পর জ্ঞান ফেরে তার। বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের ৪র্থ তলার বারান্দার একটি বেডে শুয়ে সময় কাটছে রাসেলের।

 

গত শনিবার (২৩ জুলাই) বাংলানিউজে ‘সন্তানকে বাঁচাতে মায়ের হাতে ভিক্ষার ঝুলি’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদটি প্রকাশিত হওয়ার পর রাসেলের চিকিৎসার জন্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন সমাজের বিভিন্ন শ্রেণির হৃদয়বান ব্যক্তিরা।

রাসেলের সফল অস্ত্রোপচারের পর চিকিৎসকরা বলছেন, দুই মাস আগে একটি অস্ত্রোপচার হয় রাসেলের। কিন্তু ঠিকমত ওষুধ ও সেবার অভাবে সেখানে ইনফেকশন হয়। সেজন্য বুধবার ফের অস্ত্রোপচার করতে হয়েছে। তবে এবারও যদি আগের মতো অবহেলা হয় তাহলে যেকোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটতে পারে বলে অভিমত চিকিৎসকদের।

এছাড়া রাসেলের চিকিৎসার জন্য এখনো প্রায় ২ লাখ টাকার প্রয়োজন। হাসপাতালের দেওয়া ওষুধ ছাড়াও প্রতিদিন প্রায় ৩ হাজার টাকার ওষুধের প্রয়োজন হয়। তার ভালো পথ্যেরও প্রয়োজন বলে জানান চিকিৎসকরা।

কথা হয় সন্তানের পাশে থাকা মা আমেনা বেগমের সঙ্গে। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, কুমিল্লা জেলার দেবিদ্বার উপজেলার রঘুরামপুর গ্রামে তাদের বাড়ি। ছয় ছেলেসহ মোট আটজনের পরিবার। স্বামী সিকান্দারও (৫৬) মেরুদণ্ডের রোগে আক্রান্ত। দীর্ঘদিন ধরে তিনিও চিকিৎসাধীন।

কান্না জড়িত কণ্ঠে বাংলানিউজকে ধন্যবাদ দিয়ে রাসলের মা বলেন, বাংলানিউজ ও  সমাজের বিত্তবানরা যদি এগিয়ে না আসতে তাহলে তার সন্তান কোনোভাবেই নতুন জীবন ফিরে পেতো না।

সন্তানকে বাঁচাতে মানুষের কাছ থেকে সুদে টাকা নিয়েও চিকিৎসা করিয়েছেন মা আমেনা বেগম। কিন্তু তারপরও রাসেল যখন সুস্থ হয়ে ওঠেনি তখন শেষ পথ হিসেবে ভিক্ষাকে বেছে নিয়েছিলেন রাসেলের মা আমেনা বেগম।

Leave A Reply