rockland bd

ইসরাইল গাজা যুদ্ধে দু’পক্ষের যা ক্ষতি হলো

0


বিদেশ ডেস্ক, বাংলাটুডে টুয়েন্টিফোর :
ইসরাইল ও গাজার হামাসের মধ্যে এমন সময় যুদ্ধবিরতি হল যখন গাজার বহু অবকাঠামো ও ঘরবাড়ি ধ্বংস হয়েছে। অন্যদিকে ইসরাইলও অর্থনৈতিক দিক দিয়ে ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। বলা যায় প্রায় ১২ দিনের এ যুদ্ধে দুপক্ষই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
যুদ্ধ চলাকালে ইসরাইল দুই হাজার বার গাজায় বিমান হামলা চালিয়েছে। গাজার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ইসরাইলি হামলায় এক হাজার ৪৪৭টি আবাসিক ভবন পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গেছে। আর ১৩ হাজার বাড়ি আংশিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ ছাড়া ইসরাইল গাজার সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ অর্থনৈতিক অবকাঠামো ও সেবামূলক প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করে দিয়েছে। একইসঙ্গে পানি সরবরাহ ব্যবস্থা ও সড়কগুলোও তারা গুড়িয়ে দিয়েছে। গাজার অর্থ মন্ত্রণালয়ের শিল্প বিষয়ক মহাপরিচালক আয়াদ আল জারার বলেছেন, গাজায় ইসরাইলি হামলায় ৫০টির বেশি কারখানা ধ্বংস হয়েছে এবং মোট আর্থিক ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩২ কোটি ডলারে।
পশ্চিম এশিয়া বিষয়ক বিশ্লেষক মোহাম্মদ আবু রাজ্জাক বলেছেন, ইসরাইলি আগ্রাসনে গাজার বিভিন্ন স্থাপনার ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার পাশাপাশি ২০০’র বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছে ঠিকই কিন্তু এর পাশাপাশি ইসরাইলও কম ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি। গাজা থেকে হামাসের পাল্টা রকেট হামলায় ইসরাইলের অর্থনীতিরও অনেক ক্ষতি হয়েছে। কেননা যুদ্ধচলাকালে ইসরাইলের সমস্ত বিমান বন্দর বন্ধ ছিল, শেয়ার মার্কেট বন্ধ ছিল, কোনো কোনো বন্দরে মাল খালাসের জন্য পরিবহনও চলাচল করতে পারেনি। ইসরাইলের পুঁজি বাজারে সমস্ত বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক কার্যক্রম বন্ধ থাকার পাশাপাশি ব্যাংকিং কার্যক্রমও বন্ধ হয়ে যায়। ফলে নজিরবিহীনভাবে ডলারের তুলনায় ইসরাইলের মুদ্রামান ১৪ শতাংশ পড়ে যায়।
এ ছাড়া, হামাসের ক্ষেপণাস্ত্র ও রকেট হামলা মোকাবেলা করতে গিয়ে ইসরাইলের ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা আয়রন ডোমের পেছনে তাদের অনেক ব্যয় করতে হয়েছে। ইরানের অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞ আহমাদ মেসবাহ বলেছেন, গাজায় হামলা চালাতে গিয়ে বায়তুল মোকাদ্দাস দখলদার ইসরাইলও অর্থনৈতিক দিক দিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
এদিকে, ইসরাইলের অর্থমন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে, এ যুদ্ধে তাদের ২০০ কোটি ডলারের ক্ষতি হয়েছে। তবে পর্যবেক্ষকরা বলছেন, দীর্ঘ মেয়াদেও ইসরাইল ক্ষতিগ্রস্ত হবে। কেননা এ অঞ্চলে উত্তেজনা জিইয়ে থাকার কারণে বিশেষ করে এবার হামাস যেভাবে রকেট ও ক্ষেপণাস্ত্র ছুঁড়ে ইসরাইলি আগ্রাসনের জবাব দিয়েছে তাতে নিরাপত্তাহীনতার কারণে বিদেশি পুঁজি বিনিয়োগকারীরা ইসরাইলে বিনিয়োগের ব্যাপারে উৎসাহ হারিয়ে ফেলবে।
যাইহোক, এ যুদ্ধ ইসরাইলের জন্যও শুভকর ছিল না। ইসরাইল আশা করেছিল চলতি বছর তাদের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হার ৬.৩ গিয়ে দাঁড়াবে। কিন্তু যুদ্ধের কারণে তাদের সেই প্রত্যাশা পূরণ হচ্ছে না।

সূত্র : পার্সটুডে

এবিএস

Comments are closed.