rockland bd

”ভালোবাসা মানে না কোনো বাধা”

0

বাংলাটুডে ২৪ ডেস্ক :
কথায় আছে প্রকৃত ভালোবাসা মানে না কোনো বাধা।
উনত্রিশতম ওভারের একটি বল করতে ছুটে আসছেন তাসকিন আহমেদ।
তাসকিন বল ছুড়বার মুহুর্তেই অপর প্রান্তে থাকা আফগান ব্যাটসম্যান রশিদ খান হাত তুলে তাকে থামালেন।
তারপরই টিভি ক্যামেরা ঘুরে গেল, মাঠের ভেতরে থাকা বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার পানে ছুটতে থাকা এক ব্যক্তির দিকে।
স্পষ্টতই তিনি খেলোয়াড় নন।
তিনি কোন কর্মকর্তা কিনা, পোশাক দেখে বোঝা যাচ্ছিল না।
কিন্তু এর পর ওই ব্যক্তিটি যেটা করলেন তা অভাবনীয়।
ব্যক্তিটি ছুটে গিয়ে মাশরাফিকে জড়িয়ে ধরলেন।
মাশরাফিও কিছু বুঝে উঠতে না পেরে তাকে জড়িয়ে ধরলেন।
ততক্ষণে সেখানে পৌঁছে গেছেন নিরাপত্তা কর্মীরা।
তারা মাশরাফির ওই ‘পাগল’ ভক্তকে ছাড়িয়ে নিতে এগিয়ে যাচ্ছিলেন, কিন্তু হাত তুলে তাদের ঠেকালেন মাশরাফি।
আরো কিছুক্ষণ ‘স্বপ্নের’ নায়ককে জড়িয়ে থাকার সুযোগ পেল ভক্ত।
তারপর মাশরাফি তাকে এগিয়ে নিয়ে গেলেন মাঠের বাইরের দিকে।
তখনো নিরাপত্তা কর্মীরা তাকে ধরতে গেলে হাত তুলে তাদের ঠেকালেন এবং কিছু একটা বললেন।
সম্ভবত বললেন, আমার এই পাগল ভক্তটিকে কিছু বলবেন না।
মাঠে ঢুকে পড়া ভক্তকে সামলে যেভাবে অনাকাঙ্খিত অবস্থা সামাল দিয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা, তাতে প্রশংসার ঝড় উঠেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে।
মাশরফি ওই ভক্তকে জড়িয়ে ধরে তার পেছনে ধেয়ে আসা নিরাপত্তা কর্মীদের সমাল দেন। তারা যাতে ওই ভক্তকে কোনও আঘাত না করে সে ব্যাপারেও তাকে উদ্যোগ নিতে দেখা যায়। মাশরাফির এ মহানুভবতায় ফেসবুকে উঠে প্রশংসার ঝড়।
ক্রিকেটে, বিশেষ করে বাংলাদেশের ক্রিকেট ভেন্যুগুলোতে নিরাপত্তা ব্যবস্থায় এমন কড়াকড়ি থাকে, যে কখনো কখনো বাড়াবাড়ি বলে মনে হতে পারে।
খেলোয়াড়, আম্পায়ার ছাড়া সীমিত সংখক মানুষেরই মাঠে ঢোকার অনুমোদন থাকে।
কোন সাংবাদিকতো দূরে থাক, সংশ্লিষ্ট ক্রিকেট বোর্ড এবং সংশ্লিষ্ট ম্যাচের সাথে জড়িত বহু কমূকর্তাই মাঠে ঢোকার সুযোগ পান না।
আর গ্যালারিতে থাকা দর্শকদের তো মাঠের ভেতরে ঢোকার সুযোগই নেই।
গ্যালারির সামনে এমনভাবে গ্রীল দেয়া এবং প্রবেশ-বাহিরের এমন ব্যবস্থা করা যে, তাদের মাঠের ভেতরে যাওয়ার কোন উপায়ই নেই।
এদিকে মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানিয়েছেন, অনুপ্রবেশকারী ব্যক্তিটিকে পুলিশের হেফাজতে নেয়া হয়েছে।

Comments are closed.