rockland bd

ড.  তারেক শামসুর রেহমানের ইন্তেকাল

0

 ঢাকা, বাংলাটুডে টুয়েন্টিফোর: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক ড. তারেক শামসুর রেহমানের মৃতদেহ তার ফ্লাট থেকে উদ্ধার করেছে ঢাকার তুরাগ থানা পুলিশ।
পুলিশ জানিয়েছে তিনি মারা গেছেন, কিন্তু কিভাবে কি হয়েছে তা নিয়ে তদন্ত চলছে।

জনাব রেহমান উত্তরায় রাজউকের অ্যাপার্টমেন্ট প্রকল্পে দোলনচাঁপা-১ ভবনে তার ফ্লাটে দু বছর ধরে একাই বাস করছিলেন। তার পরিবারের সদস্যরা বিদেশে অবস্থান করছেন।
উত্তরায় রাজউকের অ্যাপার্টমেন্ট প্রকল্পের পরিচালক মোঃ মোজাফফর আহমেদ জানান, সকাল সাড়ে আটটার দিকে তার বাসার গৃহপরিচারিকা এসে দরজা নক করলেও তিনি খোলেননি।
কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে ওই গৃহপরিচারিকা একই ভবনে আরেকটি বাসায় কাজ করতে যান এবং সেখানে কাজ শেষ করে আবারো মিস্টার রেহমানের ফ্লাটের সামনে এসে দীর্ঘক্ষণ কলিং বেল বাজিয়ে ও ডাকাডাকি করেও কোনো সাড়া পাননি।
“এ অবস্থায় গৃহপরিচারিকা নিরাপত্তাকর্মী ও অন্যদের বিষয়টি জানান। তারা আমাকে জানালে আমি বেলা এগারটা দিকে তুরাগ থানাকে অবহিত করি। এরপর থানা থেকে পুলিশ গিয়ে দরজা ভেঙ্গে তার মৃতদেহ দেখতে পায়,” বিবিসি বাংলাকে বলছিলেন মিস্টার আহমেদ।
তিনি বলেন, দরজা ভেঙ্গে পুলিশ মৃতদেহটির পায়ের দিকটি বাথরুমের ভেতরে ও বাকী অংশ বাইরের দিকে দেখতে পায়।
“বাথরুমে দরজায় কাত হয়ে পড়েছিলেন এবং সেখানে বমি করেছিলেন তিনি। এখন পুলিশ হয়তো তদন্ত করে বলতে পারবে কেন কিভাবে তার মৃত্যু হলো,” বলছিলেন প্রকল্প পরিচালক।
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. তারেক শামসুর রেহমান এক সময় বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনেরও সদস্য ছিলেন।
আন্তর্জাতিক ও সমসাময়িক রাজনীতির নিয়ে তার কয়েকটি বই আছে এবং তিনি গণমাধ্যমে রাজনীতির বিশ্লেষক হিসেবে সুপরিচিত ছিলেন। খবর বিবিসির।
আস / বাংলাটুডে টুয়েন্টিফোর

Comments are closed.