rockland bd

মমতাকে পুজায় শাড়ি, মিষ্টি উপহার হাসিনার

0

বিদেশ ডেস্ক,  বাংলাটুডে টুয়েন্টিফোর: বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার পৌঁছল পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে। দুর্গা পুজো উপলক্ষে হাসিনা চারটি শাড়ি এবং ১০ কেজি মিষ্টি পাঠিয়েছেন মমতাকে।
নতুন কিছু নয়। প্রতি বছরই শেখ হাসিনা পুজোয় উপহার পাঠান পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীকে। এ বছরও পাঠিয়েছেন। চারটি শাড়ি এবং গোপালগঞ্জের বিশেষ ধরনের ১০ কেজি মিষ্টি মমতাকে উপহার পাঠিয়েছেন হাসিনা। কলকাতায় বাংলাদেশের ডেপুটি হাইকমিশনারের দফতরে সেই উপহার পৌঁছে গিয়েছে। ডেপুটি হাইকমিশনার মুখ্যমন্ত্রীর প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি গৌতম সান্যালের কাছে চিঠি পাঠিয়েছেন। তাতে লেখা আছে, প্রধানমন্ত্রীর উপহার মুখ্যমন্ত্রীর কাছে পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করুন। পশ্চিমবঙ্গ প্রশাসনের সূত্র ডয়চে ভেলেকে জানিয়েছে, সোমবারই মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সেই উপহার পৌঁছে দেওয়া হবে।
হাসিনার সঙ্গে মমতার সম্পর্ক কেবলমাত্র কূটনৈতিক নয়। প্রতি বছর বিভিন্ন উৎসব উপলক্ষে মমতাও হাসিনাকে নানা উপহার পাঠান। আগে ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গেও এমনই সম্পর্ক ছিল হাসিনার। প্রতি বছর পদ্মার ইলিশ তিনি পাঠিয়ে দেন মমতা এবং প্রণব মুখোপাধ্যায়ের বাড়িতে। কিছু দিন আগেই মৃত্যু হয়েছে প্রণববাবুর। তারপর শোক প্রকাশ করেছিলেন হাসিনা। দিল্লিতে থাকাকালীন প্রণববাবুর পরিবারের সঙ্গে তাঁর বিশেষ সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল।
কূটনৈতিকরা অবশ্য মনে করছেন, এ বছর হাসিনার এই উপহার কূটনৈতিক ভাবেও বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। করোনা পরিস্থিতি এবং লকডাউনকে কেন্দ্র করে বিশেষত পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গে বাংলাদেশের খানিক টানাপড়েন তৈরি হয়েছিল। কেন্দ্র সবুজ সংকেত দিলেও মমতার প্রশাসন পশ্চিমবঙ্গের সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে ওষুধ, খাবার সহ নানা নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী বাংলাদেশে রপ্তানি করতে বাধা দিচ্ছিল। বলা হচ্ছিল, করোনা ঠেকাতেই এ কাজ করা হচ্ছে। বিষয়টি নিয়েভারতের কেন্দ্র এবং রাজ্যের মধ্যে বেশ জলঘোলাও হয়েছিল। বাংলাদেশও অসন্তোষ প্রকাশ করেছিল। তিস্তা জলবন্টন নিয়েও দীর্ঘদিন ধরে পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গে বাংলাদেশের সমস্যা রয়েছে। তারই মধ্যে লকডাউনকালীন উত্তেজনা পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত করে তুলেছিল। কিন্তু হাসিনা মমতাকে উপহার পাঠিয়ে বুঝিয়ে দিলেন, কূটনৈতিক ক্ষেত্রে বিতর্ক থাকলেও ব্যক্তিগত স্তরে তাঁদের সম্পর্ক অটুট।
এর আগেও হাসিনা এ কাজ করেছেন। এক সময় বাংলাদেশ ভারতে ইলিশ পাঠানোর উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল। কিন্তু সেই নিষেধাজ্ঞার মধ্যেও প্রধানমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ইলিশ উপহার পাঠিয়েছিলেন। বস্তুত, সেই উপহার জটিলতা কাটাতেও খানিক সাহায্য করেছিল।
পশ্চিমবঙ্গে এ বছর দুর্গাপুজো নিয়ে অবশ্য নানা বিতর্ক চলছে। করোনার মধ্যে কেন ঢালাও পুজো করার অনুমতি দিয়েছে সরকার, তা নিয়ে বিস্তর সমালোচনা চলছে। চিকিৎসকদের অনেকেই মনে করছেন, পুজোর পরে রাজ্যে করোনার প্রকোপ লাফিয়ে বাড়বে।
আস / বাংলাটুডে টুয়েন্টিফোর

Comments are closed.