rockland bd

রাবির সিওয়াইবি’র উদ্যোগে অনলাইনে প্রতিযোগিতার আসর

0

রাবি প্রতিনিধি
করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ রোধে দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ। শিক্ষার্থীরা নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। লম্বা ছুটিতে পড়াশোনা বিঘ্নিত হবার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের মাঝে ফুটে উঠেছে বিরক্তির ছাপ।

শিক্ষার্থীদের বিরক্তি লাঘব করে পড়াশোনার মধ্যে যুক্ত রাখার লক্ষ্যে অনলাইনে প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে ভোক্তা অধিকার সংস্থা ‘কনসাস কনজ্যুমার্স সোসাইটি’ (সিসিএস) এর যুব শাখা, তরুণ ভোক্তাদের সংগঠন ‘কনজ্যুমার ইয়ুথ বাংলাদেশ’ (সিওয়াইবি) রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা।

‘ইন্ট্রা সিওয়াইবি অনলাইন কম্পিটিশন-২০২০’ শীর্ষক এই প্রতিযোগিতাটি শুরু হবে আজ বুধবার (৬ই মে)। চলবে আগামী ২০ মে (বুধবার) পর্যন্ত।

শিক্ষার্থীরা প্রতিযোগিতায় যে ইভেন্টগুলোতে অংশ নিবে- প্রথমত: কুইজ প্রতিযোগিতা- ‘ভোক্তা আইন-২০০৯’ এর ওপর ভিত্তি করে প্রশ্ন থাকবে। দ্বিতীয়ত: বুক রিভিও যেখানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনী সম্পর্কিত ‘অসমাপ্ত অাত্মজীবনী, আবুল মনসুর আহমদের ‘আয়না’, আহমদ ছফার ‘মরণ বিলাস’ এবং লুসিয়াস আন্নাইউস সেনেকার ‘অন দ্যা শর্টনেস অব লাইফ’ বইগুলোর যে কোন একটির রিভিউ দিতে হবে। তৃতীয়ত: কবিতা, ছোটগল্প অথবা প্রবন্ধ। যা স্বরচিত এবং অনধিক দুই হাজার শব্দের বেশি হবে না চতুর্থত: পাবলিক স্পিকিং। বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সমসাময়ীক বিষয়াবলীর ওপর গ্রুপ ভিত্তিক আলাদা  অন্তত চার মিনিটের বক্তব্য দিতে হবে। পঞ্চমত: অনলাইন গেমস। অনলাইন লুডো খেলা অনুষ্ঠিত হবে। যেখানে ৪ জন একসাথে একটি গ্রুপে খেলবে। যা নক আউট পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হবে।

সংগঠন সূত্রে জানা গেছে- প্রতিটি বিভাগ থেকে প্রথম তিন জনকে পুরস্কৃত করা হবে। একজন প্রতিযোগী সর্বোচ্ছ ৫ টি ইভেন্টে একবার করে অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

এধরনের ব্যতিক্রম উদ্যোগ নেবার বিষয়ে কনজ্যুমার ইয়ুথ বাংলাদেশ (সিওয়াইবি) রাবি শাখার সভাপতি মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হওয়ায় বর্তমান পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীরা পড়াশোনা থেকে কিছুটা দুরে সরে গেছে। অনেকেই মূল্যবান সময়গুলো অপচয় করছে। শিক্ষার্থীদের সময়গুলোকে যাতে সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারে সেই লক্ষ্যে আমরা অনলাইন প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছি।

জানতে চাইলে সিওয়াইবি’র কেন্দ্রীয় সভাপতি পলাশ মাহমুদ বলেন, কোয়ারেন্টিনে শিক্ষার্থীরা বিভিন্নভাবে সময় নষ্ট করছে। এছাড়া লম্বা ছুটিতে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিরক্তির ছাপও দেখা গেছে। শিক্ষার্থীদের বিরক্তি দূর করে সময়ের উপযুক্ত ব্যবহার করতে সিওয়াইবি রাবি শাখা এহেন চমৎকার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। আমরা কেন্দ্রীয়ভাবে এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই। আশাকরি অন্যান্য শাখাও শিক্ষার্থীদের নিয়ে এরূপ চমৎকার উদ্যোগ গ্রহণ করবে।

উল্লেখ্য, সিওয়াইবি বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক নিবন্ধিত ভোক্তা অধিকার সংস্থা ‘কনসাস কনজুমার্স সোসাইটি’ বা ‘সচেতন ভোক্তা সমাজ’ (সিসিএস) এর যুব শাখা। সংগঠনটি দীর্ঘদিন ঢাকা, রাজশাজী, জাহাঙ্গীরনগর, জগন্নাথ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা, গণবিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন ক্যাম্পাসে খাদ্যে ভেজাল প্রতিরোধ ও ভোক্তা অধিকার বাস্তবায়নে শিক্ষার্থীদের নিয়ে সচেতনতা সৃষ্টি ও প্রশিক্ষণমূলক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

লিখন/বাংলাটুডে

Comments are closed.