rockland bd

জ্বর, সর্দি নিয়ে চার জেলায় ৫ জনের মৃত্যু

0


ঢাকা, বাংলাটুডে টুয়েন্টিফোর: বরিশাল, খুলনা, রাজশাহী ও মানিকগঞ্জের বিভিন্ন হাসপাতালে রবিবার ও শনিবার রাতে জ্বর ও সর্দি জাতীয় রোগে আক্রান্ত হয়ে দুই নারীসহ পাঁচজন মারা গেছেন।
মৃতদের মধ্যে দুজন বরিশাল জেলায় এবং বাকি তিনজন খুলনা, রাজশাহী ও মানিকগঞ্জ জেলায়।
বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে দুজন মারা গেছেন।
মৃতরা হলেন- পটুয়াখালীর সদর উপজেলার বাসিন্দা জাকির হোসেন (৪৫) এবং নগরীর পুরানপাড়ার মো. দুলালের স্ত্রী নিরু বেগম (৪৫)।
তাদের নমুনাগুলো কোভিড-১৯ পরীক্ষার জন্য সংগ্রহ করা হয়েছে কিনা তা স্পষ্ট নয়।
দুজনের মধ্যে একজন শনিবার মধ্যরাতে এবং অপরজন রবিবার সকালে মারা যান।
সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানকে (আইইডিসিআর) এ বিষয়ে অবহিত করা হয়েছে এবং কর্তৃপক্ষ তাকে দাফনের অনুমতি দিয়েছে বলেও চিকিৎসক জানান।
রোগীর এক স্বজন জানান, মৃত রোগী দীর্ঘদিন যাবত অ্যাজমাজনিত শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন।
খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটের আইসোলেশনে থাকা সুলতান শেখ (৭০) নামে এক ব্যক্তির রবিবার সকালে মৃত্যু হয়েছে।
নড়াইল জেলার কালিয়া উপজেলার আব্দুল গফুর শেখের ছেলে সুলতান গত শুক্রবার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন।
খুমেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটের ইনচার্জ ডা. শৈলেন্দ্র নাথ বিশ্বাস বলেন, সুলতান শেখের করোনা ইউনিটে ভর্তি থাকলেও তিনি যক্ষ্মার রোগী ছিলেন।
বিষয়টি ঢাকায় আইইডিসিআর কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে, তারা জানিয়েছে তার নমুনা পরীক্ষার প্রয়োজন নেই। সে কারণে তার লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
খুলনার সিভিল সার্জন ডা. সুজাত আহমেদও জানিয়েছন, মৃত সুলতান শেখ যক্ষ্মা রোগী ছিলেন।
মানিকগঞ্জে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে সুচিত্রা সরকার (২৬) নামে এক নারীর মৃত্যুর পর তার পরিবারকে লাকডাউনে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।
মৃত গৃহবধূ সুচিত্রা সরকার হরিরামপুর উপজেলার বলড়া ইউনিয়নের বড়ইছড়া গ্রামের মুদি দোকানদার নিতাই সরকারের স্ত্রী।
রবিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার মুন্নু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানকার চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
হাসপাতালের উপ-পরিচালক এস এম মনিরুজ্জামান বলেন, ‘মৃত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে আনা হয়েছিল।’

স্বজনদের বরাত দিয়ে মনিরুজ্জামান আরও বলেন, সুচিত্রা সরকার গত ৭ দিন ধরে জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট এবং দুদিন ধরে ডায়রিয়ায় ভুগছিলেন। হাসপাতালে নেয়ার আগেই ওই মহিলা মারা যান বলে তিনি জানান।
এক সপ্তাহ আগে ওই নারীর শ্বশুর মারা যান জানিয়ে তিনি আরও বলেন, শ্বশুরের শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে অনেক লোক সমাগম হয়েছিল। সেখানে আসা কোনো ব্যক্তির কাছ থেকে তিনি আক্রান্ত হতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।
এদিকে শনিবার রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক যুবক মারা গেছেন।
চিকিৎসকরা জানান, নারায়ণগঞ্জ থেকে জ্বর ও কাশিতে আক্রান্ত হয়ে আসা যুবক আল আমিন (২২) মেনিনজাইটিস রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।
মারা যাওয়া যুবক আল আমিন রাণীনগর উপজেলার কালিগ্রাম ইউনিয়নের অলঙ্কারদীঘি গ্রামের কৃষক মকলেছুর রহমানের ছেলে।
নিহতের বাবা কৃষক মকলেছুর রহমান জানান, তার ছেলে আগে থেকেই এ রোগে ভুগছে। দীর্ঘদিন ধরে নারায়ণগঞ্জে একটি কাপড়ের দোকানে কাজ করে আল আমিন। শুক্রবার রাতে আল আমিন গায়ে জ্বর আর কাশি নিয়ে খুব অসুস্থ অবস্থায় নারায়ণগঞ্জ থেকে নওগাঁর রানীনগর আসে। শনিবার সকালে নিজ বাড়িতে আসার সময় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও গ্রামের লোকজন তাকে গ্রামে ঢুকতে দেয়নি।
পরে চিকিৎসার জন্য তাকে নওগাঁ সদর ও আদমদীঘি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। চিকিৎসকরা সেখানে তাকে রাখতে চায়নি বলে তাকে নিজ গ্রামের পাশের ভেটি কমিউনিটি ক্লিনিকের বারান্দায় রাখা হয়।
পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকরা তাকে রাত সাড়ে ৯ টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন।
হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস বলেন, আল আমিনকে জ্বর ও কাশি নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও তিনি মেনিনজাইটিসে ভুগছিলেন।
রাতে নিহতের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
বাংলাদেশে গত ৪৮ ঘণ্টায় নতুন করে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) আক্রান্ত শনাক্ত হয়নি বলে রবিবার নিশ্চিত করেছে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। ফলে দেশে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪৮ অপরিবর্তিত হয়েছে।

সংস্থাটির পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা অনলাইনে সংবাদ সম্মেলনে জানান, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড-১৯ আক্রান্ত কেউ শনাক্ত হয়নি। ঢাকা ও চট্টগ্রামে ১০৯ নমুনা পরীক্ষা করে নেগেটিভ ফল পাওয়া গেছে। এ পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত মোট ১৫ জন সুস্থ হয়েছে। খবর ইউএনবির।

আস / বাংলাটুডে টুয়েন্টিফোর

Comments are closed.