rockland bd

গ্রামীণফোন বিটিআরসির পাওনার হাজার কোটি টাকা জমা করেছে

0


ঢাকা, বাংলাটুডে টুয়েন্টিফোর: আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী মোবাইল সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান গ্রামীণফোন বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বিটিআরসি-কে এক হাজার কোটি টাকা দিয়েছে ।
দুপুরে রাজধানীর বিটিআরসির দপ্তরে গিয়ে গ্রামীণফোনের পক্ষ থেকে চার সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল এ সম্পর্কিত পে-অর্ডার হস্তান্তর করে। যার নেতৃত্ত্ব দেন গ্রামীণফোনের পরিচালক ও হেড অব রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স হোসেন সাদাত।
এর ফলে আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী, নির্ধারিত সময়ের এক দিন আগেই, বিটিআরসির নিরীক্ষায় দাবি করা সাড়ে ১২ হাজার কোটি টাকা থেকে সমন্বয়যোগ্য এক হাজার কোটি টাকা জমা দেয়া হল গতকাল।
গ্রামীণফোনের কর্মকর্তা হোসেন সাদাত বলেন, বিদ্যমান আইনের প্রতি শ্রদ্ধা থেকে এই টাকা জমা দিয়েছেন তারা।
“আমাদের একটা আইনগত অবস্থান আছে। তবুও আমরা বাংলাদেশের বিদ্যমান আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।”
হোসেন সাদাত বলেন, “তবে আমাদের আইনগত অবস্থান অক্ষুন্ন রেখে আমরা অ্যাপিল ডিভিশনের আদেশ অনুযায়ী সমন্বয়যোগ্য এই টাকা বিটিআরসিতে জমা দিয়েছি।”
ফেসবুকের ভেরিফায়েড পেইজে এক স্ট্যাটাসে টাকা পাওয়ার খবর নিশ্চিত করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তফা জব্বারও।
নিজের স্ট্যাটাসে মোস্তফা জব্বার লিখেছেন, “সুখবরটা পেলামই। গ্রামীণফোন এক হাজার কোটি টাকা প্রদান করেছে।”
গ্রামীণফোনের এই পদক্ষেপকে সঠিক ও ইতিবাচক বলে উল্লেখ করেছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী।
“রাষ্ট্রের পাওনা এবং আদালতের নির্দেশ মান্য করা বাংলাদেশে যেসব ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান আছে প্রত্যেকের জন্য অবশ্য পালনীয়। তাই বাংলাদেশে ব্যবসা করতে হলে আদালতের নির্দেশনা মানতে হবে, এটাই তো স্বাভাবিক।”
তবে আজকের এই পদক্ষেপের পর এ ধরণের কঠোরতায় শিথিল করা বা কোন পরিবর্তন আসবে কিনা এমন প্রশ্নে বিটিআরসির ভাইস-চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্র বলেন, বিষয়টি এখনো বিচারাধীন রয়েছে। তাই এ ক্ষেত্রে আদালতের সিদ্ধান্তই মেনে চলবেন তারা।
“তারা টাকা দিয়েছে। এই ক্ষেত্রে কোর্টে আগামীকাল একটা শুনানি হবে। এতে যে নির্দেশনা আসবে সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে,” তিনি বলেন।
টেলিযোগাযোগ কর্তৃপক্ষ বিটিআরসির দাবি, গ্রামীনফোন এবং রবি, এই দুইটি টেলিকম কোম্পানির কাছে ২০ বছরে সাড়ে ১৩ হাজার কোটি টাকা বকেয়া রয়েছে সংস্থাটির। খবর বিবিসির।

আস / বাংলাটুডে টুয়েন্টিফোর

Comments are closed.