rockland bd

বগুড়ার শেরপুরে বিদ্যুতপৃষ্টে বৃদ্ধা নিহত

0

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি
বগুড়ার শেরপুরের বৃন্দাবন পাড়া গ্রামে গত বৃহস্পতিবার ভোরে নিজ ঘরে বিদ্যুতের সুইচ দিতে গিয়ে রবিবালা নামের এক বৃদ্ধা নিহত হয়েছে।
জানা যায়, উপজেলার গাড়িদহ মডেল ইউনিয়নের বৃন্দাবন পাড়া গ্রামের মৃত যাত্রারাম সরকারের স্ত্রী রবিবালা (৬২) বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫ টার দিকে পুঁজার জন্য শিউলি ফুল তোলার জন্য বাহিরে যান। ফুল তুলে বাড়িতে এসে নিজ ঘরে প্রবেশ করে এবং বিদ্যুতের সুইচ দিলে সে সুইচের সাথে আটকে যায়। পরে তার নাতনী শ্রাবনি তাকে ছাড়াতে গেলে সেও সটকে পরে আহত হয়। শ্রাবনির চিৎকারে বাড়ির অন্যান্য লোকজন এসে বিদ্যুতের লাইন বন্ধ করে দিয়ে তাকে উদ্ধার করলেও বৃদ্ধা রবিবালা সেখানেই মারা যায়। পরে ওই দিন সকাল ৯ টার দিকে স্থানীয় উত্তরবাহিনী মহাশ্মসানে তাকে দাহ করা হয়।

দুবলাগাড়ী পরিবহন শ্রমিক সমবায় সমিতির দ্বি-বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত
শেরপুরের দুবলাগাড়ী পরিবহন শ্রমিক সমবায় সমিতির দ্বি-বার্ষিক সাধারণ সভা ৭ নভেম্বর সকাল ১০টায় দুবলাগাড়ী চারমাথা কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে।
অত্র সমিতির সভাপতি আব্দুল বারীক এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, শেরপুর পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো: জানে আলম খোকা। হোসেন আলীর স ালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বগুড়া জেলা বাস, মিনিবাস, কোচ ও মাইক্রবাস পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আরিফুর রহমান মিলন, সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মতি। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, দুবলাগাড়ী পরিবহন শ্রমিক সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহ-আলম, পরিচালক জাহিদুল ইসলাম, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ। এ সময় সদস্যদের মাঝে স য়ের টাকা বিতরণ করা হয়।

বিয়ের প্রলোভনে নারীকে ধর্ষণ, যুবক গ্রেফতার

বগুড়ার শেরপুরের ধাওয়াপাড়া গ্রামে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে স্বামী পরিত্যাক্ত নারীকে ধর্ষণ করার ঘটনায় মামলার প্রেক্ষিতে ধর্ষক শামিম আহম্মেদ নামের লম্পটকে আটক করে গত বুধবার বিকালে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।
অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার কুসুম্বি ইউনিয়নের ধাওয়াপাড়া গ্রামের ইউসুব আলীর মেয়ে বিগত এক বছর ধরে স্বামী পরিত্যক্তা ওই নারীকে পাশের খিকিন্দা পশ্চিমপাড়া গ্রামের আব্দস ছালামের ছেলে শামিম আহম্মেদ (৩০) বিয়ের প্রলোভন দিয়ে আসছিল। বাড়িতে বাবা-মা না থাকার সুযোগে শামিম আহম্মেদ গত ৪ নভেম্বর রাত ১১টার দিকে ঘরে ঢুকে আবারো বিয়ের প্রস্তাব দেয়। এতে ওই নারী রাজি না হলে লম্পট শামীম তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে ধর্ষণের শিকার ওই নারী চিৎকার শুরু করলে আশপাশের প্রতিবেশি লোকজন এগিয়ে আসলে লম্পট শামীম পালিয়ে যায়। গ্রামবাসি বিষয়টি পরের দিন জানতে পেরে ধর্ষক শামিমকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। এ ঘটনায় ধর্ষিতা বাদি হয়ে শেরপুর থানায় মামলা দায়ের করেন।
এ প্রসঙ্গে শেরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বুলবুল ইসলাম এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, উক্ত ঘটনায় থানায় মামলা নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি ঘটনায় অভিযুক্তকে আটক করে বুধবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। এছাড়া ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষা বৃহস্পতিবার ০৭ নভেম্বর বগুড়ায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে সম্পন্ন করা হবে বলেও জানান ওই পুলিশ কর্মকর্তা।
আব্দুল ওয়াদুদ/বাংলাটুডে

Comments are closed.