rockland bd

ইবিতে আবরারের বিচার চেয়ে লিফলেট বিতরণ

0

আর.এম রিফাত, ইবি প্রতিনিধি
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশকে তাড়িয়ে দিল ছাত্রলীগের বিদ্রোহী গ্রুপের নেতা-কর্মীরা। গতকাল শনিবার দুপুর পৌঁনে ১২টার দিকে ক্যাম্পাসের ছাত্রলীগের দলীয় টেন্টে এ ঘটনা ঘটে।

তথ্য সূত্রে, শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ক্যাম্পাসে আসলে তার কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে দলীয় টেন্টে অবস্থান নেন। কিছুক্ষণ পরে অনুষদ ভবনের দিকে গিয়ে আবার টেন্টে বসে কর্মী-সমর্থকদের সাথে কুশল বিনিময়কালে বিদ্রোহী গ্রুপের নেতা-কর্মীরা সেখানে উপস্থিত হন।

এসময় বিদ্রোহী গ্রুপের নেতা বিপুল খান ও শাহজালাল হোসেন সোহাগ শাখা সভাপতি পলাশকে তুই-তুকারি করে টেন্ট থেকে তাড়িয়ে দেন। পরে শাখা সভাপতি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে গেলে দলীয় টেন্ট থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে বিদ্রোহী গ্রুপের নেতা-কর্মীরা। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক হয়ে বিভিন্ন সড়ক পদক্ষিণ শেষে একই স্থানে এসে মিলিত হয়। পরে সেখানে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

ইবি ছাত্রলীগের পদ বঞ্চিত নেতারা বলেন, পলাশ-রাকিবকে আগেই অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেছি। দুর্নীতিবাজদের ঠাই এ ক্যাম্পাসে হবেনা। এছাড়াও তিনি শাখা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবের বিরুদ্ধে অভিযোগসমূহ তুলে ধরেন।

পরে কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে বুয়েট শিক্ষার্থী ‘আবরার ফাহাদ হত্যার বিচার হবেই’ শীর্ষক লিফলেট বিতরণ করেন বিদ্রোহী গ্রুপের নেতা-কর্মীরা। সাবেক ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান লালন ও সাবেক সহ-সম্পাদক ফয়সাল সিদ্দিকী আরাফাতের নেতৃত্বে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন অনুষদ, চত্বরে শিক্ষার্থীদের মাঝে ও ক্যাম্পাসের দোকানগুলোতে লিফলেট বিতরণ করে তারা।

লিফলেটে বলা হয়, বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের নৃশংস হত্যার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে ও দ্রুত বিচারের দাবি জানাচ্ছে ছাত্রলীগ। ইতোমধ্যে সাংগঠনিকভাবে তদন্ত কমিটি গঠন করে তাদের বহিষ্কার করা হয়েছে। আবরার হত্যাকাণ্ডে জড়িত ১৯ জনের মধ্যে ১৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকীদেরকেও গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনা হবে।
লালন/বাংলাটুডে

Comments are closed.