rockland bd

ক্যাসিনো আইনসঙ্গত ব্যবসা নয়, কাউকে করতে দেবো না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

0

আসাদুজ্জামান খান কামাল

ডেস্ক রিপোর্ট, ২২ সেপ্টেম্বর (বাংলাটুডে) : বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ‘এ দেশে ক্যাসিনো আইনসঙ্গত ব্যবসা নয়, আইনের বাইরে কোনও ব্যবসা আমরা কাউকে করতে দেবো না। এটা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ।
আজ (রোববার) সকাল ১১টায় রাজধানীর মানিক মিয়া অ্যাভিনিউয়ে ‘বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়িমুক্ত দিবস’ অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ক্যাসিনোতে ব্যবসা বাংলাদেশে অবৈধ। যেটা অবৈধ ব্যবসা সেটা চলতে পারে না। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে এর বিরুদ্ধে অভিযান চলছে। জড়িতরা কেউ ছাড় পাবে না, পর্যায়ক্রমে সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে। তদন্ত চলছে। অপরাধ প্রমাণ হলেই শাস্তি।’

হাছান মাহমুদ

বিএনপি দুর্নীতিকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিয়েছিল: তথ্যমন্ত্রী
এদিকে, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, “যেখানে মাদক কিংবা ক্যাসিনো বা অনিয়ম হচ্ছে সেখানে ব্যবস্থা গ্রহণ করছে সরকার। সেক্ষেত্রে কে কোন্‌ মতের বা কোন পথের সেটি দেখা হচ্ছে না। যেটি বিএনপির আমলে করা হয়নি। বিএনপির আমলে তারা দুর্নীতিকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিয়েছিল। হাওয়া ভবন বানিয়ে প্রত্যেক ব্যবসায় ১০ পার্সেন্ট কমিশন বসানো হয়েছিল। খোয়াব ভবন বানিয়ে আমোদ-ফুর্তি করা হতো। সেই জায়গায় প্রধানমন্ত্রী এখন সমস্ত অনিয়ম, মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি নিয়ে অগ্রসর হচ্ছেন। এতে তো বিএনপির খুশি হওয়ার কথা। বিএনপির সাধুবাদ জানানোর কথা। আর তাদের ব্যর্থতার জন্য লজ্জা পাওয়ার কথা।”
আজ দুপুরে সচিবালয়ে বাংলাদেশ টেলিভিশন শিল্পী সমিতির নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব মন্তব্য করেন।সম্প্রতি ক্যাসিনোতে চালানো অভিযানে সরকার দলীয় দুই নেতাকে গ্রেফতারের পর বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, কেঁচো খুড়তে আওয়ামী লীগের মধ্য থেকে সাপ বের হচ্ছে।
এ মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় তথ্যমন্ত্রী বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে বলব- নিজেদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হচ্ছেন বড় অজগর সাপ, সেতো সব খেয়ে ফেলে। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে সেই জায়গায় রেখে, নিজেরা পরপর পাঁচবার দেশকে দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন বানিয়েছিলেন। তাদের তো এ নিয়ে কথা বলার কোনো নৈতিক অধিকার নেই।’
অপর এক প্রশ্নের জবাবে হাছান মাহমুদ বলেন, যেখানে অনিয়ম পাওয়া যাচ্ছে সেখানেই ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। আমরা পরপর তৃতীয়বার রাষ্ট্র ক্ষমতায় থাকার কারণে অনেক অনুপ্রবেশকারী আমাদের সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ে ঢুকেছে। তাদের চিহ্নিত করার কাজ চলছে, ব্যবস্থা নেয়া হবে। যাদের ধরা হচ্ছে কোনোটাই কেঁচো নয়, কোনোটাই চুনোপুঁটি নয়।
সরকারের উচ্চ পর্যায়ে, আমলা-মন্ত্রী পর্যায়ের লোককেও কমিশন দিয়ে অবৈধ কাজ করেছেন বলে গ্রেফতার হওয়া ব্যক্তিদের দাবির বিষয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, তারা যে কথাগুলো বলেছে সেগুলো পত্রপত্রিকায় আমিও দু’এক জায়গায় দেখেছি। এই কথাগুলো স্টিল নট ভ্যালিডেটেড। অবশ্যই তাদের সঙ্গে যাদের সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যাবে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে।
-পার্সটুডে

এবিএস

Comments are closed.