rockland bd

পালকি চড়ে স্নিগ্ধা

0

নতুন প্রজন্মের পরিচিত মুখ স্নিগ্ধা মোমেন। ছোটবেলা থেকেই গান নাচ আর অভিনয়ের প্রতি আগ্রহ অনেকটাই বেশি। তাই পড়াশোনার পাশাপাশি মিডিয়ায় কাজ করার ইচ্ছা ছিল বরাবরই।

শুধু নিজের ইচ্ছাতেই নয়, পরিবারের সদস্যরাও চেয়েছেন যেন পর্দার মানুষ হয়ে সামনে এগিয়ে যেতে পারেন এ নবাগত অভিনেত্রী। সমর্থনের বিষয়ে পিছপা হননি মা-বাবাও।

তাই মেয়েকে সেভাবেই তৈরি করতে চেয়েছেন তারা। শুধু মা-বাবার ইচ্ছাতেই নয়, নিজের জায়গা প্রতিষ্ঠা করতে শুরু থেকে এখন পর্যন্ত নিজের চেষ্টাও ছিল অনেক।

এ প্রসঙ্গে স্নিগ্ধা বলেন, ‘ছোটবেলা থেকেই ইচ্ছা ছিল একজন শিল্পী হব। পরিবারের প্রতিটি মানুষ মনেপ্রাণে এমনটাই চেয়েছেন। ছোটবেলা থেকে এখন পর্যন্ত সব কিছুতে ছায়ার মতো আমার পাশে থেকে আমাকে সাহস দিয়ে যাচ্ছেন। যেন আমি আমার কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারি।’

বুলবুল ললিতকলা একাডেমি থেকে নাচের কোর্স করেন স্নিগ্ধা। উদ্দেশ্য নিজেকে আরও ভালোভাবে প্রস্তুত করা। নিজ তাগিদ থেকেই টুকটাক কিছু নাটক এবং বিজ্ঞাপনে কাজ করেন তিনি।

পরবর্তী সময়ে বেশকিছু স্টিল বিজ্ঞাপনে এবং কয়েকটি ম্যাগাজিনের মডেল হিসেবে কাজ করে কিছুটা পরিচিতি পান স্নিগ্ধা। কিন্তু তাতে তৃপ্ত হতে পারছিলেন না। কারণ নিজেকে প্রমাণ করার জন্য একটি প্লাটফর্ম দরকার ছিল তার।

সে ভাবনা থেকে ২০০৮ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতায় অংশ নিলেও সেখানে খুব বেশি এগুতে পারেননি। কারণ চেষ্টা থাকলেও ভাগ্য তার সহায় হয়নি।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘নিজের ইচ্ছাতেই টুকটাক কাজ করছিলাম। কিন্তু একটা সময় মনে হয়েছে ভালো কিছু করার জন্য একটি প্লাটফর্মের দরকার। সে জন্যই লাক্স প্রতিযোগিতায় অংশ নেই। কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে সেখানে ১১তম প্রতিযোগী হয়ে ছিটকে পড়েছিলাম।

প্রথমে খুব মন খারাপ হলেও পরে নিজেকে মানিয়ে নিয়ে সামনের দিনগুলোতে কাজ করার ইচ্ছাকে বাড়িয়ে নিজেকে সেভাবে তৈরি করতে থাকি।’

এরপর ২০১২ সালে মিডিয়ায় পুরোদমে কাজ শুরু করেন স্নিগ্ধা। বেশ কয়েকটি নাটকে অভিনয় করেন তিনি। শেষতক দীপ্ত টিভিতে প্রচার চলতি ‘পালকি’ সিরিয়ালটিই তাকে এনে দিল খ্যাতির জোয়ার। নাটকে ‘পালকি’ চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে স্নিগ্ধা বলেন, ‘আগেও কম-বেশি নাটকে কাজ করা হয়েছে। কিন্তু পালকি নাটকের চরিত্রটির জন্য যে এতটা পরিচিতি পাব তা ভাবিনি। এটা অবশ্যই নতুন একজন শিল্পী হিসেবে ভালো লাগার জায়গা।

তাছাড়া নাটকটিতে কাজ করে আমি অনেক খুশি। কারণ দর্শকরা এখন আমাকে এই নামেই চেনেন। একজন অভিনেত্রীর জন্য এটি অনেক বড় পাওয়া।’

এমন অর্জনের পর অভিনয়কেই পেশা হিসেবে নিতে চান স্নিগ্ধা। তাই নিজের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে বলেন, ‘আমি আসলে অভিনয় নিয়েই থাকতে চাই। মনেপ্রাণে চাই একজন ভালো অভিনেত্রী হতে।

এটা শুধু আমার চাওয়া নয়। আমার পরিবারের প্রতিটি সদস্য চায় আমি যেন অভিনয় করে জনপ্রিয় হই। সেই পথেই এগুচ্ছি। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।’

 

Comments are closed.