rockland bd

বগুড়ার শেরপুরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নারী সহ নিহত ৪

0

আব্দুল ওয়াদুদ, শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি
বগুড়ার শেরপুরে দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে তিনজন এবং একই স্থানে মহাসড়ক পারাপার হতে নিয়ে নারীসহ চারজন নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন আরো তিনজন। বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টম্বর) ভোর রাতে বগুড়া-ঢাকা মহাসড়কে শেরপুর উপজেলার মহিপুর (হাজি হাজিপুর) নামক স্থানে দুর্ঘটনা দুটি ঘটে।
নিহত আমেনা বেগম (৫০) হাজ্বীপুর এলাকায় মৃত আব্দুল হামিদের স্ত্রী ও অপর ৩ জনের নাম জানা যায়নি। আহতরা হলেন লালমনির হাট জেলার কালিগঞ্জ থানার কাকিনা গ্রামের তইব আলীর ছেলে রাসেল (২২), গাইবান্দা জেলার সাদুলাপুর থানার ছোটগাছা গ্রামের আঃ রাজ্জাকের ছেলে মেহেদী হাসান (২০), বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ থানার সাহেবপুর গ্রামের রফিক হাওলাদরের ছেলে শাহিন (৩০)।
জানাগেছে, বৃহস্পতিবার ভোর ৫টায় ঢাকাগামী কলা বোঝাই একটি ট্রাকের (ঢাকা মেট্রো ট-২২-৯৬৪৫) সাথে বিপরীতমুখি রড বোঝাই ট্রাক (ঢাকা মেট্রো ট-১১-৮২৬৫) বগুড়া-ঢাকা মহাসড়কে শেরপুর উপজেলার মহিপুর (হাজি হাজিপুর) নামক স্থানে মুখোমুখি সংঘর্ঘ হয়। এসময় দুর্ঘটনা কবলিত রডবোঝাই ট্রাকের পিছনে আরেকটি কাভার্ড ভ্যান (ঢাকা মেট্রো ট-১১-৯৬৪৯) ধাক্কা দেয়। এতে রড বোঝাই ট্রাকের হেলপার এবং কলা বোঝাই ট্রাকের চালক ও হেলপার নিহত হন । এছাড়াও আরোজন তিনজন গুরুতর আহত হন। দুর্ঘটনার কারনে ভোর ৫টা থেকেই ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা হতাহতদের উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়।
শেরপুর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার রতন হোসেন জানান হতাহতদের নাম পরিচয় পাওয়া যায়নি। অপরদিকে মহাসড়কে যানবাহন চলাচল শুরু হলে নাতী শাহরিয়ারকে (৭) স্কুল বাসে উঠিয়ে দেওয়ার জন্য মহাসড়ক পারাপারের সময় একই স্থানে সকাল ৭টায় বাস চাপায় আমেনা বিবি (৫৫) নামের একজন নারী নিহত হয়েছেন। জানাযায়, ঢাকাগামী শ্যামলী পরিবহনের একটি বাস তাকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়।এতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। বাসটি আটক করা যায়নি।
শেরপুর ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট ফারুক আহম্মেদ ও ফিরোজ আহম্মেদ বলেন তিনটি ট্রাকের সংঘর্ষের কারনে দুর্ঘটনার পর থেকেই প্রায় ৩ঘন্টা মহাসড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ট্রাক গুলো সরিয়ে নেয়ার পর সকাল সাড়ে ৭ টায় যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়।
রাকিব/বাংলাটুডে

Comments are closed.