rockland bd

ঐক্যফ্রন্ট নেতারা যা বলেছেন বিদেশী কূটনীতিকদের

0


নিজেস্ব প্রতিবেদক, ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ (বাংলাটুডে) :
বাংলাদেশে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশ ও সংস্থার প্রতিনিধিদের সাথে বৈঠক করেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা। বৈঠকে গণতন্ত্র, ভোট ডাকাতি, নির্বাচন, তথা-কথিত সংসদ, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, বিচারবিভাগ, দুর্নীতি, অর্থনীতি, রোহিঙ্গা এবং বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয় কূটনৈতিকদের কাছে তুলে ধরেছেন ঐক্যফ্রন্টের নেতারা। বুধবার গুলশানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খানের বাসায় এটি অনুষ্ঠিত হয়।
যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার, ব্রিটিশ হাই কমিশনার রবার্ট ডিকসন, কানাডার উপ-রাষ্ট্রদূত, ইউএনডিপির আবাসিক প্রতিনিধি, ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিসহ পশ্চিমা সাতটি দেশের কূটনীতিকরা বৈঠকে অংশ নেন।
ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা গণফোরামের সভাপতি কামাল হোসেন ছাড়াও বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না ও গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি, কারাবন্দি খালেদা জিয়ার সর্বশেষ অবস্থা, অর্থনৈতিক পরিস্থিতি এবং ফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য মঈনুল হোসেনকে কারাগারে পাঠানোসহ নানা বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এ ছাড়া রোহিঙ্গা ইস্যুতেও বৈঠকে কথা হয়।
একটি সূত্র জানিয়েছে, সংসদ কার্যকর কিনা সে বিষয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের বক্তব্য জানতে চেয়েছেন কূটনীতিকরা। ঐক্যফ্রন্ট নেতারা বলেছেন, সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে এ সংসদ গঠিত হয়নি। কীভাবে তা কার্যকর হবে।
বৈঠক শেষে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আমরা বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেছি, কূটনীতিকরা শুনেছেন। তারা কিছু বলেন নাই।’
ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য আ স ম আব্দুর রব বলেন, ‘চায়ের আড্ডায় মইন খানের বাসায় এসেছিলাম। সামাজিক রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে।’

এবিএস

Comments are closed.