rockland bd

রাজারহাট সীমান্তবর্তী সিন্দুরমতি মন্দিরের মূর্তি ও মন্দির ভাংচুর

0

এ.এস. লিমন,  রাজারহাট (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি

কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকায় অবস্থিত সিন্দুরমতি মন্দির ও বেশ কয়েকটি মুর্তি ভাংচুর করেছে দূর্বৃত্তরা। এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, কুড়িগ্রামের রাজারহাট -লালমনিরহাট সীমান্তবর্তী এলাকায় সিন্দুরমতি দীঘির পাড়ে অবস্থিত উত্তরবঙ্গের ঐতিহ্যবাহী সিন্দুরমতি মন্দির।

গত ৩০ আগষ্ট শুক্রবার গভীর রাতে দূর্বুত্তরা মন্দিরের দরজার গ্রিল ভাংতে না পেরে বারান্দায় রাধাকৃষ্ণের মুর্তি ভেঙ্গে দেয়। পাশের মূর্তিরও একই অবস্থা করে। এসময় ওই মন্দিরের ভিতরের মূর্তিতে গোবর দিয়ে ঢিল ছোড়ে। দূর্গা মন্দিরের গ্রিল ভাংচুর করতে না পেয়ে দেয়াল ভাংগার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয় দূর্বৃত্তরা।এছাড়া পাশের শিব ও কালী মন্দিরের বারান্দার দেয়াল (ভেন্টিলেটার ওয়াল) ভেঙ্গে ফেলে। অপরদিকে সিন্দুরমতি পুকুরের মূল ফটকে অবস্থিত পাথর দিয়ে তৈরি মহাদেব মূর্তি ভাংচুর করতে না পারলেও সাপের মাথা ভেঙ্গে ফেলে দূর্বৃত্তরা।

ওই এলাকার সনাতন ধর্মালম্বী নবকুমার (৪০) বলেন, কে বা কারা গভীর রাতে এ অপকর্ম করে মন্দির ও রাধা গোবিন্দ মন্দিরের মূর্তিগুলো ভাংচুর করে। এখানে নিয়মিতভাবে পূজাঅর্চনা করা হয়। মন্দিরে কোন পাহারাদার নেই। কয়েকদিন পূর্বে পাশের রামমন্দিরে মূর্তিগুলো ফেলে দেয়া হয়েছিল। এ ব্যাপারে কোন পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়নি। তাই এবার সিন্দুরমতি মন্দিরের মুর্তিগুলো ভেঙ্গে দিল দূর্বৃত্তরা। সিন্দুরমতি মন্দির পূজা কমিটির সভাপতি ডাঃ দেবেন্দ্রনাথ সরকার বলেন, মন্দির ও মূর্তি ভাংচুরের বিষয়টি শুনেছি। আপাতত অজ্ঞাতনামায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। লালমনিরহাট জেলা প্রশাসন ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেছে।

এ বিষয়ে লালমনিরহাট সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মাহফুজ আলম এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, শনিবার রাত ৯ টায় এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত লালমনিরহাট সদর থানায় মন্দির কমিটির সাধারন সম্পাদক মনোরঞ্জন বাদী হয়ে মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি এ প্রতিনিধিকে জানিয়েছেন। সবমিলিয়ে ওই এলাকা জুড়ে প্রশাসনের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।
রকি/বাংলাটুডে

Comments are closed.