rockland bd

কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বাতিলকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন

0

সুপ্রিম কোর্ট

বিদেশ ডেস্ক, ১৮ আগস্ট (বাংলাটুডে) : জম্মু-কাশ্মীর থেকে সে রাজ্যের বিশেষ মর্যাদা সম্বলিত ৩৭০ ধারা বাতিলকে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন সাবেক এয়ার ভাইস মার্শাল কপিল কাকসহ অন্যরা।
সুপ্রিম কোর্টে আবেদনকারীদের মধ্যে আছেন সাবেক এয়ার ভাইস মার্শাল কপিল কাক, সাবেক মেজর জেনারেল অশোক মেহতা, সাবেক স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা রাধা কুমার, জম্মু-কাশ্মীর ক্যাডারের সাবেক আইএএস কর্মকর্তা হিন্দাল তৈয়েবজি, অমিতাভ পান্ডে ও পাঞ্জাব ক্যাডারের সাবেক আইএএস কর্মকর্তা এবং কেরালা ক্যাডারের সাবেক আইএএস ও স্বরাষ্ট্র সচিব গোপাল পিল্লাই। আবেদনকারীরা সুপ্রিম কোর্টে জম্মু-কাশ্মীর পুনর্গঠন আইন ও সংবিধানের ৩৭০ ধারা অপসারণের বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করেছেন।
এরআগেও ৩৭০ ধারা বাতিলকে চ্যালেঞ্জ করে কেন্দ্রীয় সরকারের ওই সিদ্ধান্তকে অসাংবিধানিক বলে অভিহিত করে সুপ্রিম কোর্টে বেশ কিছু আবেদন জমা পড়েছে। গত শুক্রবারও ৩৭০ ধারা বাতিলকে কেন্দ্র করে সুপ্রিম কোর্টে শুনানি শুরু হয়। কিন্তু আবেদনে ত্রুটি থাকার জন্য পরে ওই শুনানি হবে। যদিও আদালত এ ব্যাপারে তারিখ নির্ধারণ করেনি।সুপ্রিম কোর্ট গত (শুক্রবার) কাশ্মীর টাইমস পত্রিকার সম্পাদক অনুরাধা ভাসিনের আবেদনেরও শুনানি করে। আবেদনে বলা হয়েছিল, রাজ্যে ল্যান্ডলাইন, মোবাইল, ইন্টারনেটের মতো পরিষেবা বাধাগ্রস্ত হওয়ার কারণে এবং সাংবাদিকদের চলাফেরায় বিধিনিষেধের কারণে সেখানে কাজ করা কঠিন হয়ে পড়েছে। এজন্য শ্রীনগর থেকে তাদের সংবাদপত্র প্রকাশিত হচ্ছে না।
অ্যাটর্নি জেনারেল বেনুগোপাল ওই আবেদনের বিরোধিতা করে বলেন, ওনাদের পত্রিকার জম্মু সংস্করণ প্রকাশিত হচ্ছে। কিন্তু শ্রীনগর থেকে এটি মুদ্রিত হচ্ছে না। এর কোনও কারণ নেই। মামলার ভিন্ন রূপ দেয়ার চেষ্টা মাত্র। রাজ্যের পরিস্থিতি উন্নত করতে সরকার ও নিরাপত্তা বাহিনী একনাগাড়ে চেষ্টা চালাচ্ছে। এজন্য আদালতের হস্তক্ষেপ করা উচিত নয়।
আবেদনকারীদের উদ্দেশে আদালতের পক্ষ থেকে বলা হয়- আমরা জানতে পেরেছি যে রাজ্যের অবস্থা ধীরে ধীরে উন্নতি হচ্ছে। ল্যান্ডলাইন ও মোবাইল পরিসেবা বহাল করা হচ্ছে। এ সময়ে আমরা হস্তক্ষেপ করতে চাই না। আপনাদের আবেদন মুলতুবি রাখা হচ্ছে। প্রয়োজনে পরে তা শোনা হবে।-পার্সটুডে

এবিএস

Comments are closed.