rockland bd

ডোমার রেলষ্টেশনের বুকিং অফিস টিকিটের দাবীতে অবরুদ্ধ

0

ডোমার রেলষ্টেশনের টিকিট বুকিং অফিস ঈদ পরবর্তী ঢাকা গামী টিকিটের দাবীতে এক ঘন্টা অবরুদ্ধ করে রাখে ফিরতী রেলযাত্রীরা


আবু ফাত্তাহ্ কামাল, ডোমার প্রতিনিধি, ০৭ আগস্ট (বাংলাটুডে) : নীলফামারীর ডোমার রেলষ্টেশনের টিকিট বুকিং অফিস ঈদ পরবর্তী ঢাকা গামী টিকিটের দাবীতে এক ঘন্টা অবরুদ্ধ করে রাখে ফিরতী রেলযাত্রীরা । বুধবার সকাল ৯ টায় এ ঘটনা ঘটে ।খবর পেয়ে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে ।
সরেজমিনে জানা যায়,পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার বড়শশী ইউনিয়নের মহিষবাথান গ্রামের তারা মিঞার পুত্র ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের (বিবিএ)চতুর্থ বষের্র শিক্ষার্থী ফরিদুল ইসলাম জানান, ঈদ করার জন্য বাড়ীতে এসেছি । ঈদ শেষে আবার বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিরব । ১৬ তারিখের (১৬/০৮/১৯ ইং) ফিরতি টিকিটের জন্য রেলষ্টেশনে এসেছি ।কিন্তু আমি শুরুতেই লাইনে দাড়াঁনোর সময় ৩৫ নম্বর সিরিয়ালে ছিলাম । কিন্তু প্রায় ২৮ জনের পর এসেই টিকিট দেওয়া বন্ধ করে দেয় বুকিং মাষ্টার ।শুরুতে বুকিং মাষ্টার ৬০টি টিকিট দেবেন বলেছিলেন । আমাদের ডির্পামেন্টের বড় ভাই সুমন ( ফেসবুকে লাইভে অন্যায়ের প্রতিবাদ করে দেশজুড়ে আলোচিত নাম) ভাইয়ের কাছ থেকে অনুপ্রানিত হয়ে আমরা এতবড় অন্যায়ের এতটুকু প্রতিবাদ করতে পারব না ।
ষ্টেশনপাড়ার ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সম্পদক ও বর্তমান ছাত্রলীগ কর্মী আরিফুল ইসলাম রকি জানান , আমি শুরুতেই লাইনে দাড়াঁনোর সময় গননা করেই ৩৭ নম্বর সিরিয়ালে ছিলাম । কিন্তু ২৮ জনের পর এসেই টিকিট দেওয়া বন্ধ করে দেয় বুকিং মাষ্টার । বাকী টিকিট তারা কি করে ,সেটাই আমাদের প্রশ্ন ? আমার ধারনা ,এদের সাথে কালো বাজারীদের একটা লিং আছে । জনগন প্রায় এক ঘন্টা তাদের অবরুদ্ধ করে রাখে ।
এ ব্যাপারে ডোমার রেলষ্টেশনের বুকিং সহকারী হুমায়ুন কবির জানান,কিছু ছেলেপুলে আমাদের অবরুদ্ধ করে । দরজা ভাংচুরের চেষ্টা করছে। চাহিদার তুলনায় টিকিট বরাদ্ধ কম থাকায় এ অভিযোগ উঠছে । আমরা অন্যান্য ষ্টেশনের মতো এখানেও মনিটরিং কমিটি করে দিলে এসব অভিযোগ থাকবে না । বরাদ্ধ তো বেশী করতেই হবে ।
এ ব্যাপারে ডোমার থানার ওসি (তদন্ত) বিশ্বদেব রায় জানান, কিছুক্ষন তারা অবরুদ্ধ ছিল ।যথেষ্ট ফোর্স পাঠানো হয়েছে ।এখন কোন সমস্যা নেই ।
ডোমার রেলষ্টেশন মাষ্টর মোঃ আব্দুল মতিন জানান, মনিটরিং কমিটি করে দেওয়ার জন্য আমরা আজকেই ( বুধবার ) দুপুরে ইউএনও মহোদয়ের নিকট লিখিত ভাবে অনুরোধ করেছি ।
ডোমার উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা উম্মে ফাতিমা জানান, তারা লিখিতভাবে অনুরোধ করলে মনিটরিং কমিটি করে দেওয়া হবে ।
উল্লেখ্য, ডোমার রেলষ্টেশনে নীলসাগর এক্সপ্রেসে ঢাকাগামী টিকিটের ব্যাপক চাহিদা থাকলেও এসি বাথ ২ টি, এসি চেয়ার ১০টি, শোভন চেয়ার ৭৫টি টিকিট বরাদ্ধ রয়েছে ।আজ (বুধবার ) ১৬/০৮/১৯ ইং তারিখের টিকিট দেওয়া হচ্ছিল । এ নিয়ে প্রায় যাত্রীদের সাথে টিকিট প্রত্যাশীদের প্রায় বদসা সৃষ্টি হয় ।

আমিন/০৭আগস্ট/২০১৯

Comments are closed.