কুপিয়ে রিফাতকে হত্যার ঘটনায় নেয়া পদক্ষেপ সম্পর্কে জানতে চায় হাইকোর্ট

0

বরগুনা শহরের কলেজ রোডে বুধবার প্রকাশ্যে কোপানো হয় রিফাত শরীফকে। এতে তাঁর মৃত্যু হয়।


আদালত প্রতিবেদক, ঢাকা, ২৭ জুন (বাংলাটুডে) : বরগুনায় প্রকাশ্য দিবালোকে স্ত্রীর সামনে রিফাত শরীফকে (২২) কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে নেয়া পদক্ষেপ সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট।
বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার মধ্যে ওই ঘটনায় মামলা হয়েছে কি না বা কী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে সে সম্পর্কে আদালতকে জানাতে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশারকে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।
বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।
এর আগে রিফাতকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর আদালতের নজরে আনেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী রুহুল কুদ্দুস তালুকদার।

রিফাত শরীফ


আদালত তার পর্যবেক্ষণে বলেন, ‘সারাদেশের সবাই এই ঘটনায় মর্মাহত। সমাজটা কোথায় যাচ্ছে? প্রকাশ্য রাস্তায় মানুষটাকে মারল। ভিডিও করল, কিন্তু কেউ এগিয়ে আসল না। এটি জনগণের ব্যর্থতা।’
আদালত বলেন, ‘বরগুনার পাশে পিরোজপুর জেলা আছে। এটি একটি উপকূলীয় এলাকা। এর আগে একটি মামলায় আসামি ধরার সময় উধাও হয়ে গেছেন। এ ক্ষেত্রে (রিফাত হত্যা) এমনটি হলে তা হবে দুঃখজনক। আসামিরা যেন দেশত্যাগ করতে না পারেন, এ ব্যাপারে পুলিশপ্রধানকে জানিয়ে দিন।’
উল্লেখ্য, বুধবার সকালে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে প্রকাশ্যে কয়েকজন যুবক বরগুনা সদর উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের মাইঠা-লবনগোলা এলাকার বাসিন্দা রিফাতকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে জখম করে চলে যায়। বিকেল চারটার দিকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রিফাতের মৃত্যু হয়।
নৃশংস এই হামলার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায়। ভিডিওতে দেখা যায়, রিফাতকে বাঁচানোর জন্য তার স্ত্রী চিৎকার করলেও আশপাশের কেউ এগিয়ে আসেনি। হামলাকারীরা রিফাতকে রক্তাক্ত করে সবার সামনে দিয়েই চলে যায়।
এ ঘটনায় রিফাত বাবা বৃহস্পতিবার সকালে ১২ জনকে আসামি করে বরগুনা সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। সকাল ৮টার দিকে অভিযান চালিয়ে চন্দন নামে অভিযুক্ত এক আসামিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

আমিন/২৭জুন/২০১৯

Comments are closed.