rockland bd

ঈদের আগেই পঞ্চগড়-ঢাকা রুটে চালু হচ্ছে স্বল্প বিরতির আন্তনগর ট্রেন

0


পঞ্চগড় প্রতিনিধি, সামসউদ্দীন চৌধুরী কালাম (বাংলাটুডে) :
গত বছরের ১০ নভেম্বর থেকে পঞ্চগড়-ঢাকা রুটে সরাসরি দুইটি আন্তনগর ট্রেন চালু হওয়ার পর এবার এই রুটে চালু হচ্ছে আরেকটি স্বল্প বিরতির লাল-সবুজ ট্রেন।
ইন্দোনেশিয়া থেকে আনা অত্যাধুনিক পিটি ইনকার ১২টি কোচ দিয়ে চালু হচ্ছে এই রুটে যাত্রীসেবা। এতে করে আগের চেয়ে অনেক কম সময়ের মধ্যে এই দুই জেলার যাত্রীরা ঢাকা এবং ঢাকা থেকে আসতে পারবেন।
আগামী ২৬ মে সকাল ১১টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই ট্রেন উদ্বোধন করবেন বলে নিশ্চিত করেছেন রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার শরিফুল আলম। আর এটাই হবে দেশের বেশি দুুরত্বের প্রথম স্বল্প বিরতির ট্রেন। তবে এই ট্রেনের কি নাম হচ্ছে তা প্রধানমন্ত্রী নিজেই ঘোষণা করবেন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে।
জানা গেছে, আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর ট্রেনটি ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে ছেড়ে বিরতিহীনভাবে পৌছবে দিনাজপুরের পার্বতিপুরে। সেখান থেকে দিনাজপুর-ঠাকুরগাঁও হয়ে শেষ স্টেশন হিসেবে পঞ্চগড়ে থামবে। তবে পঞ্চগড়ে পৌছার আগে দিনাজপুরের চিরিরবন্দর, সেতাবগঞ্জ এবং ঠাকুরগাঁয়ের সদর, পীরগঞ্জ এবং রুহিয়ায় সামান্য বিরতি দেয়ার কথা রয়েছে।
পঞ্চগড় ও ঠাকুরগাঁও জেলাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি পঞ্চগড়-ঢাকা রুটে সরাসরি আন্তনগর ট্রেন চালু করা। এ দাবির প্রেক্ষিতে ৯৮২ কোটি টাকা ব্যয়ে রেল মন্ত্রণালয়ের আওতায় পার্বতীপুর থেকে ঠাকুরগাঁও হয়ে পঞ্চগড় পর্যন্ত ১৫০ কিলোমিটার রেললাইন ডুয়েলগেজে রুপান্তরের কাজ শুরু হয় ২০১০ সালে। ওই বছরের ৩১ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই রেললাইন উন্নয়ন কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এই কাজ শেষ হয় ২০১৬ সালে। ২০১৭ সালের ১৭ জুন সাবেক রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক পঞ্চগড়-ঢাকা রুটে আন্তনগর ট্রেন চালুর আগে পঞ্চগড়-দিনাজপুর রুটে শাটল ট্রেন উদ্বোধন করেন। এই শাটল ট্রেনে করে এই দুই জেলার যাত্রীরা দিনাজপুর-ঢাকা রুটে চলাচলকারী আন্তনগর একতা ও দ্রুতযান এক্সপ্রেসে করে যাতায়াত করে আসছে। এই শাটল ট্রেনের ভোগান্তির কারণে সরাসরি ঢাকা-পঞ্চগড় রুটে আন্তনগর ট্রেন চলাচলের দাবিতে স্থানীয়ভাবে সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো যুগপত আন্দোলন শুরু করে। এ দাবির প্রেক্ষিতে গত বছরের ১০ নভেম্বর থেকে দিনাজপুর-ঢাকা রুটে চলাচলকারী আন্তনগর একতা ও দ্রুতযান ট্রেন দু’টিতে সম্প্রসারণ করে পঞ্চগড়-ঢাকা রুটে চলাচল শুরু করে। এ দু’টি ট্রেন বর্তমান পর্যন্ত এই রুটে চলাচল করলেও নির্ধারিত আসনের কারণে অধিকাংশ রেলযাত্রী রেলভ্রমণ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।
বর্তমান রেলমন্ত্রী অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম সুজন দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই এই দুই জেলার সর্বস্তরের মানুষের দাবি ছিল ঢাকা-রাজশাহীর মত পঞ্চগড়-ঢাকা রুটে বিরতিহীন ট্রেন চালু করার। এই দাবির প্রেক্ষিতে তারই উদ্যোগে এই রুটে বিরতিহীন না হয়ে আপাতত স্বল্প বিরতির ট্রেন চালু হতে যাচ্ছে।
বাংলাদেশ রেলওয়ের পঞ্চগড় স্টেশন মাস্টার মোশাররফ হোসেন বলেন, ঢাকা থেকে পঞ্চগড় পর্যন্ত স্বল্প বিরতির ট্রেন চালু হচ্ছে এটা আমরা জেনেছি। তবে এই ট্রেনের নাম, সময়সূচি, আসন সংখ্যা ও ভাড়া কত হবে তা এখনও আমাদের জানানো হয়নি।
রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার শরিফুল আলম ঢাকা-পঞ্চগড় রুটে স্বল্প বিরতির ট্রেন উদ্বোধনের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ২৬ মে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর কার্যালয় থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই ট্রেন উদ্বোধন করবেন। উদ্বোধনী দিনে তিনি এই ট্রেনের নামকরণও করবেন। নতুন এই ট্রেনটি চালু হলে বৃহত্তর দিনাজপুরবাসী তথা উত্তরাঞ্চলের ট্রেন যাত্রীরা উপকার পাবেন।

আমিন/১৪মে/২০১৯

Comments are closed.