rockland bd

সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সংরক্ষণে সরকার নানা মুখি কাজ করছে : রেলমন্ত্রী

0


খলিলুর রহমান শেখ, নেত্রকোনা প্রতিনিধি (বাংলাটুডে) :
সংস্কৃতি মানুষের মুল্যবান সম্পদ। একটি জাতির সংস্কৃতি হারিয়ে যাওয়া মানে সে জাতির পরিচয় হারিয়ে যাওয়া। বৃহত্তর ময়মনসিংহ অঞ্চলে বসবাসকারী গাড়ো সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় ও সামাজিক উৎসব ওয়ানগালা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান একটি অসাম্প্রদায়িক মানবিক স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মানে জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকল মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় সংগ্রাম করে গেছেন। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার ক্ষুদ্র নৃ- গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক চর্চা. তাদের ইতিহাস, ঐতিহ্য সংরক্ষনে নানা মুখি কাজ করে যাচ্ছে।
শুক্রবার বিকেলে জেলার দুর্গাপুরে দুই দিনব্যাপি আদিবাসীদের সাংস্কৃতিক উৎসবে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে রেলমন্ত্রী অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম সুজন এমপি এ সব কথা বলেন।
তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা ও আত্ম নির্ভরশীল দেশ গড়তে হলে আধুনিক রেলপথের কোন বিকল্প নেই। তাই আমরা রেলপথকে ঢেলে সাজানোর চেষ্টা করছি। রেলপথের নানা অনিয়ম দূর্নীতি রুখে সচ্ছতা, দক্ষতা, জবাবদিহিতামূলক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। স্বাধীনতা পূর্ববর্তী সময়ে রেলপথে যোগাযোগ ছিল শতকরা ৩০ভাগ, এখন ওই যোগাযোগ ১১ভাগে নেমে এসেছে। অন্যান্য যোগাযোগের সাথে তাল মিলিয়ে রেলপথকে আরো বিস্তর গতিতে এগিয়ে নেবার জন্যে নতুন নতুন প্রকল্প হাতে নেওয়া হচ্ছে। বিশে^র সাথে তাল মিলাতে ও আধুনিক রাষ্ট্রের ভিত্তি হিসেবে রেলপথের উন্নয়নের কোন বিকল্প নেই। এ এলাকার চাহিদা ও প্রয়োজনীয়তার কথা চিন্তা করে জারিয়া থেকে দুর্গাপুর পর্যন্ত ১২কিলোমিটার রেলপথের জন্যে প্রকল্প দেওয়া হবে। শিবগঞ্জ নদীর উপর ব্রীজ নির্মাণ কাজ অচিরেই যাতে করা যায় তার জন্য দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
বিরিশিরি ক্ষুদ্র নৃ- গোষ্ঠীর কালচারাল একাডেমী মিলনায়তনে দুই দিনব্যাপী গাড়ো সমাবেশ, মেলা ও সাংস্কৃতিক ওয়ানগালা উৎসব উদ্বোধন করেন স্থানীয় এমপি মানু মজুমদার। নেত্রকোনার জেলা প্রশাসক মঈনউল ইসলামের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আলোচনায় প্রধান বক্তা ছিলেন- মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী খান খসরু এমপি।
অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরী, একাডেমীর পরিচালক শরদিন্দু সরকার (স্বপন হাজং), নির্বাহী সদস্য এডলফ মারাক, আদিবাসী লেখক ও গবেষক রেভা: মনিন্দ্র নাথ মারাক, আদিবাসী নেতা ভদ্র দ্রং, মৃনাল কান্তি সাংমা, লুদিয়া রুমা সাংমা প্রমুখ। দুর্গাপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জান্নাতুল আরা ঝুমা, কলমাকান্দা উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল খালেক তালুকদার, দুর্গাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলাউদ্দিন আল-আজাদ, সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ, গীতিকার ও কবি সুজং হাজং প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

আমিন/০৩/২০১৯

Comments are closed.