rockland bd

শীতলক্ষ্যার তীরে অর্ধশত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

0


মো:মামুন মিয়া, নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে গড়ে উঠা প্রায় অর্ধশত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদীবন্দর কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যে একটি পাকা দোতলা ভবন, ৪/৫ টি স’ মিল, কয়েকটি কাঠের দোকান, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও কাঁচা পাকা এবং টিনের বসতঘর রয়েছে।
১৫ এপ্রিল সোমবার দুপুর ১২ টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত বিআইডব্লিউটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে রূপগঞ্জ উপজেলার তারাব এলাকায় এ অভিযান চালানো হয়।এ সময় উচ্ছেদকৃত অবৈধ দোকানপাট থেকে জব্দ করা কাঠ, টিন, বালু সহ বিভিন্ন মালামাল দুই লাখ বিশ হাজার টাকায় নিলামে বিক্রি করা হয়।
উচ্ছেদ অভিযানে আরো উপস্থিত ছিলেন বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের উপ-পরিচালক মো: শহীদুল্লাহ সহ অন্যান্য কর্মকর্তারা। পুলিশ ও আনসার সদস্যরা ছাড়াও বিপুল সংখ্যক উচ্ছেদ কর্মী এ অভিযানে অংশ নেন।
বিআইডব্লিউটিএ’র নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমান জানান, নদীর সীমানা পিলারের অভ্যন্তরে এবং আইন অমান্য করে নদীর সীমানার দেড়শ’ ফুটের ভেতরে গড়ে উঠা প্রায় অর্ধ-শত অবৈধ স্থাপনা ভেঙ্গে গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে একটি পাকা দোতলা ভবন, ৪/৫ টি স’ মিল, কয়েকটি কাঠের দোকান, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও কাচা পাকা এবং টিনের বসতঘর রয়েছে। তিনি জানান, নদী অবৈধ দখলমুক্ত না হওয়া পর্যন্ত এ অভিযান চলবে।
বিআইডব্লিউটিএ’র নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের উপ-পপরিচালক মো: শহীদুল্লাহ জানান, উচ্ছেদের পূর্বে অবৈধ দখলদারদের স্থাপনা ও মালামাল সরিয়ে নিতে নোটিশ দেয়া হয়েছিল। এরপরেও তারা সরিয়ে না নেয়ায় অবৈধ স্থাপনাগুলো উচ্ছেদ করা হয়েছে। রূপগঞ্জের তারাবো সুলতানা কামাল সেতু থেকে কাঞ্চন ব্রীজ পর্যন্ত শীতলক্ষ্যার উভয় তীরে উচ্ছেদ অভিযান চলবে।
তিনি জানান, জেলা প্রশাসন, ভূমি কর্র্তৃপক্ষ ও বিআইডব্লিউটিএ’র যৌথ সমন্বয়ে নদীর সীমানা সংক্রান্ত পুন:জরিপ হয়েছে। এ অনুযায়ী পুণরায় সীমানা পিলার স্থাপন করা হবে। সেই প্রেক্ষিতে জরিপ অনুযায়ী নদীর জায়গা দখলমুক্ত করা হচ্ছে।

লিখন/বাংলাটুডে

Comments are closed.