rockland bd

রাজৈরে প্রধান শিক্ষকের প্রত্যাহার দাবীতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ অব্যাহত

0

মোঃ ইব্রাহীম,রাজৈর(মাদারীপুর) প্রতিনিধি

গত ২ এপ্রিল মঙ্গলবার নবম শ্রেণির ছাত্র কিংকন বৈদ্য স্কুলে না আসায় শিক্ষকরা তাকে খূঁটিতে বেধে নির্যাতন চালায়। পরদিন বুধবার কিংকন রাজৈর হাসপাতালে ভর্তি হয়। এই ঘটনায় ৬ এপ্রিল শনিবার শিক্ষার্থীরা স্কুলে তালা ঝুলিয়ে শিক্ষকদের বিচারের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করে। পরে ৯ এপ্রিল মঙ্গলবার প্রধান শিক্ষক সকুলে আসলে শিক্ষার্থীরা তার উপর হামলা চালায়। গুরুতর আহতাবস্থায় প্রধান শিক্ষককে ঐ দিনই রাজৈর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার কদমবাড়ী ইউনিয়নের আড়–য়াকান্দি নটাখোলা বড়খোলা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক স্বপন ঠাকুরের উপর হামলার ঘটনায় বৃহস্পতিবার প্রধান শিক্ষকের উপর হামলার ঘটনায় স্কুল ম্যানেজিং কমিটির কয়েকজন সদস্যসহ ১০ জনের নাম উল্লেখকরে ও অজ্ঞাতনামা ১৯/ ২০জনকে আসামী করে রাজৈর থানায় চাঁদাবাজি, চুরিসহ অন্যান্য অভিযোগে মামলা দায়ের হয়েছে। প্রধান শিক্ষক নিজে বাদী হয়ে এই মামলা দায়ের করেন। অপরদিকে এই মামলা প্রত্যাহার ও প্রধান শিক্ষকের অপসারনের দাবীতে শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ছাত্রছাত্রীরা বিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছে। মানববন্ধন চলাকালে ছাত্ররা জানান, মিথ্যা চাঁদাবাজির মামলা প্রত্যাহার ও প্রধান শিক্ষক স্বপন ঠাকুরের অপসারন যতদিন পর্যন্ত না হবে ততদিন পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে। ছাত্র নির্যাতন,প্রধান শিক্ষকের উপর হামলা ও মামলার ঘটনায় ২ এপ্রিল থেকে স্কুলটিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে।
প্রধান শিক্ষক অজ্ঞাতনামা ১৯/২০ জনকে আসামী করে চাঁদাবাজি, চুরিসহ অন্যান্য অভিযোগে ১১ এপ্রিল বৃহষ্পতিবার রাজৈর থানায় মামলা দায়ের করেন। এই মামলা প্রত্যাহার ও প্রধান শিক্ষক স্বপন ঠাকুরের অপসারন দাবীতে শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে বিক্ষোভ মিছিল করে। এ পরিস্থিতিতে স্কুলের প্রায় সাড়ে পাঁচশত ছাত্রছাত্রীর লেখা-পড়ার পরিবেশ এক প্রকার বন্ধ হয়ে পড়েছে। স্থানীয় প্রশাসনের কঠোর অবস্থানের কারনে পরিবেশ সাময়িক শান্ত থাকলেও যেকোন মুহুর্তে বড় ধরনের সংঘর্ষের আশংকা করছে এলাকাবাসি।
রাজৈর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ শাহজাহান জানান, চাঁদাবাজি, চুরিসহ অন্যান্য অভিযোগে প্রধান শিক্ষক বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে। মাদারীপুর জেলা প্রশাসক ওয়াহিদুল ইসলাম জানান,স্কুলে লেখা-পড়ার পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জন্য জরুরী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

লিখন/বাংলা টুডে

Comments are closed.