rockland bd

খুশকি থেকে অকালে টাক পড়া, ঘরোয়া এই এক উপাদানেই বাজিমাত!

0


ডেস্ক প্রতিবেদন (বাংলাটুডে) :
খুশকি থেকে শুরু করে চুল ঝরার সমস্যা— চুলের সৌন্দর্যের পথে কাঁটা হয়ে দাঁড়ায় এই দুই ঘটনা। মাথার ত্বক শুকিয়ে গিয়ে খুশকি আর তার প্রভাবেই অকালে চুল পড়ে যাওয়া, এই দু’টির নেপথ্যেই চুলের আর্দ্রতা কমে যাওয়া অন্যতম কারণ।
অকালে টাক পড়ে যাওয়ার সমস্যা রুখতে তাই চুলকে কোমল ও আর্দ্র করে তোলা জরুরি। চুলের নানা যত্নের সময়, এ দিকটার কথা আমরা প্রায়ই ভুলি। তাই ক্ষার যুক্ত শ্যাম্পু, কন্ডিশনারে ভরসা করে থাকি আমরা। অনেক সময় ঘরোয়া উপায়ে যত্ন নিলেও চুলের আর্দ্রতার কথা আমরা ভুলতে বসি।
কিন্তু জানেন কি, শুষ্ক চুল, খুশকি ও অকালে টাক পড়ার সমাধান আপনার হাতের কাছেই রয়েছে। সহজলভ্য উপাদান ও নামমাত্র খরচে শুধু মধু ব্যবহার করেই চুলের এই সব সমস্যার সমাধান সহজেই হতে পারে। জানেন, কী ভাবে ব্যবহার করতে হবে মধু?

মাথার স্কাল্পকে নরম ও আর্দ্র করে তুলতে এক মগ জলে আধ কাপ মধু মিশিয়ে নিন। শ্যাম্পুর পর এই মধু মেশানো জল দিয়েই ধুয়ে নিন চুল। তার পর আবারও নরম (কম ক্ষার যুক্ত) কোনও কন্ডিশনার দিয়ে ধুয়ে ফেলুন চুল।
দু’ চামচ অলিভ অয়েল, সঙ্গে এক চামচ মধু, এক চামচ নারকেল তেলের মিশ্রণ গরম করে চুলে মাসাজ করুন। কিছু ক্ষণ রেখে ধুয়ে ফেলুন চুল। এতে খুশকির প্রবণতা কমবে। ফলে চুলও পড়বে না।
টকদই ও মধু এই দুই-ই প্রাকৃতিক ময়শ্চারাইজার। তাই এই দুইয়ের মিশ্রণ চুলে মাখিয়ে রাখলে চুলে আর্দ্রতা ফেরে ও খুশকির সমস্যা দূর হয়।
একটি ডিম, দু’চামচ টক দই ও এক চামচ মধুর মিশ্রণ চুলে লাগিয়ে মিনিট কুড়ি সাওয়ার ক্যাপ দিয়ে ঢেকে রাখুন। তার পর কম ক্ষারের কোনও শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে নিন চুল। কন্ডিশনার দিতে ভুলবেন না কখনও। সূত্র: আনন্দবাজার

এবিএস

Comments are closed.