rockland bd

বৈশ্বিক প্রতিযোগী হিসেবে শিশুদের গড়ে তুলতে কাজ করছে সরকার: শেখ হাসিনা

0

প্রতিবেদন । ইউএনবি, বিএসএস


শিশুদের যথাযথভাবে গড়ে তুলতে সরকার প্রয়োজনীয় বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শিশুরা যাতে ভবিষ্যতে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে অন্যদের সাথে সফলভাবে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করতে পারে সে জন্যও সরকার কাজ করছে, বলেন প্রধানমন্ত্রী। 

”বিশ্বব্যাপী প্রতিযোগিতায় আমাদের শিশুদের সামনে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ নিচ্ছে সরকার”।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তি ও বিজ্ঞানভিত্তিক সমাজ গড়তে কাজ করছি আমরা।

রবিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে সৃজনশীল মেধা অণ্বেষণ এর মেধাবীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

গত ছয় বছর ধরে সৃজনশীল মেধাবীদের অন্বেষণে প্রতিযোগিতার আয়োজন করে আসছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। শিক্ষার্থীদের মধ্যে সুপ্ত প্রতিভার বিকাশ ঘটানো ও তাদের উৎসাহ যোগাতেই এ অনুষ্ঠান।

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, প্রযুক্তি জ্ঞান সম্পন্ন জাতি গড়তে বিজ্ঞান ও কারিগরি শিক্ষার ওপর গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার। তাই মেধাবীদের উৎসাহিত করতে প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে খুঁজে বের করে তাদের পুরস্কৃত করা হচ্ছে। এটা অব্যাহত থাকবে।

শেখ হাসিনা বলেন, সারাদেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা মেধাবীদের দেশে বিদেশে কাজের সুযোগ করে দেওয়া হবে। যাতে তারা নিজেদের মেধা মননের প্রতিফলন ঘটাতে পারেন।

তিনি বলেন বিশ্ব খুব দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে, সবাকিছুকে এই গতির সাথেই এগিয়ে নিতে হবে। আমরা শিশুদের এমনভাবে তৈরী করতে চাই যাতে তারা বৈশ্বিক গতির সাথে তাল মিলিয়ে চলতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিশ্বের বড় বড় বিশ্ববিদ্যালয় ও স্কুলে যে ধরনের বিষয় পড়ানো হয় আমরা সেসব বিষয় আমাদের শিক্ষাব্যবস্থায় সংযোজন করতে পদক্ষেপ নিচ্ছি।

”দরিদ্র ও ক্ষুদামুক্ত দেশ গড়তে শিক্ষাই সবচেয়ে বড় উপকরণ।” শিক্ষিত মানুষ যে কোন পরিস্থিতিতে টিকে থাকতে পারে।
স্যাটেলাইট ও পরমানু বিদ্যুত ক্ষেত্র পরিচালনায় বাংলাদেশের আরো দক্ষ জনশক্তি প্রয়োজন বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে এ সময় শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদসহ মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় সারাদেশ থেকে ১২ জন মেধাবীসহ ১০৮ জনের হাতে পুরস্কার তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বাংলাটুডে২৪/আর এইচ

Comments are closed.