rockland bd

ভুয়া জন্মদিন ও মানহানির মামলায় খালেদার জামিন নাকচ

0

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা


দুই মামলায় বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন নাকচ করে দিয়েছেন আদালত। একটি হল ভুয়া জন্মদিন পালন এবং আরেকটি যুদ্ধাপরাধীদের ক্ষমতায় বসিয়ে দেশের মানচিত্র, পতাকা ও মুক্তিযুদ্ধকে অবমাননা করা। আজ বৃহস্পতিবার (৫ জুলাই) পৃথক দুটি আদালতে শুনানি শেষে এই রায় দেন মহানগর হাকিম আহসান হাবিব ও মহানগর হাকিম খুরশিদ আলম।


আদালতে খালেদা জিয়া, ফাইল ফটো।


এর আগে গত ১৭ মে এই দুটি মামলায় জামিন চেয়েছিলেন খালেদা জিয়া। সে প্রেক্ষিতে ২১ জুন আদালত রায়ের জন্য আজকের দিনটি ধার্য করেছিলেন।
২০১৭ সালের ১৭ নভেম্বর ঢাকার আদালত ভুয়া জন্মদিন পালনের মাধ্যমে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসকে অবমাননার অভিযোগে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।
ভুয়া জন্মদিন পালনের অভিযোগে ২০১৬ সালের ৩০ আগস্ট ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গাজী জহিরুল ইসলাম বাদী হয়ে ঢাকার মহানগর হাকিম আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।
বাদী মামলার এজাহারে বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার একাধিক জন্মদিন নিয়ে ১৯৯৭ সালে ১৯ ও ২২ আগস্টে দুই জাতীয় দৈনিকে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী সাবেক এ প্রধানমন্ত্রীর মেট্রিকুলেশন পরীক্ষার নম্বরপত্র অনুযায়ী জন্ম তারিখ ৫ সেপ্টেম্বর ১৯৪৬ সাল। ১৯৯১ সালে তিনি প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে একটি দৈনিকে তার জীবনী নিয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জন্মদিন ১৯৪৫ সালে ১৯ আগস্ট বলে উল্লেখ করা হয়। অন্যদিকে তার বিয়ের কাবিননামায় জন্মদিন হিসেবে লেখা আছে ৪ আগস্ট, ১৯৪৪ সাল। সর্বশেষ ২০০১ সালে মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট অনুযায়ী তার জন্মদিন ৫ আগস্ট ১৯৪৬ সাল।
২০১৬ সালের ৩ নভেম্বর এ বি সিদ্দিকী স্বাধীনতাবিরোধীদের ক্ষমতায় বসিয়ে দেশের মানচিত্র ও জাতীয় পতাকার মানহানি ঘটানোর অভিযোগে ঢাকার মহানগর হাকিম আদালতে মানহানির মামলাটি দায়ের করেছিলেন।
সর্বশেষ গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় একটি বিশেষ আদালত খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর কারাদণ্ড দেন। বর্তমানে তিনি কারাগারে আছেন।

বাংলাটুডে২৪/আর এইচ

Comments are closed.