rockland bd

সারাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩৪ জন নিহত

0

বাংলাটুডে ডেস্ক : সারাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩৪ জন নিহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। ঈদ আনন্দ শেষে গন্তব্যে ফেরার সময় নিহত হয়েছেন তাঁরা। এ সময় আহত হয়েছেন অর্ধশতাধিক। শনিবার ভোর ও শুক্রবার দিবাগত রাতে গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে যাত্রীবাহী বাস উল্টে ১৬ জন এবং রংপুরের তারাগঞ্জে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ছয়জন নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া ঢাকার সাভারে একজন, নাটোরে দুজন, গোপালগঞ্জে দুজন, চুয়াডাঙ্গায় একজন, সিরাজগঞ্জে দুজন, ফরিদপুরে দুজন ও লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে দুজন নিহত হয়েছেন। তবে তাৎক্ষণিক নিহতদের সবার নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর

রংপুর: রংপুরে বালুবোঝাই ট্রাকের ধাক্কায় বিআরটিসি বাসের ৬ যাত্রী নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ৬ জন। তাদের উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার গভীর রাতে জেলার সদর উপজেলার পাগলাপীর সলেয়াশাহ্ এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। বাসটি রাস্তার ধারে থামিয়ে চাকা মেরামত করছিল হেলপার। এ সময় পেছন থেকে বালুবোঝাই একটি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-ট ১৮-১৯০৪) বাসটিকে ধাক্কা দিলে বাসে থাকা দুই নারীসহ ৬ জন যাত্রী নিহত হন। এ ঘটনায় আহত হন ৬ জন। তাদের উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পেছনের কোন সিগন্যাল লাইট জ্বলে না থাকার কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে জানান যাত্রীরা। বাসের এক যাত্রী জানান, আমরা ঈদের ছুটি শেষে ঢাকায় কর্মস্থলে ফিরছিলাম। পথে বাসটি নষ্ট হয়ে যায়। আমি বাসের দোতলায় ছিলাম। হঠাৎ বাসে সজোরে কি যেন একটা ধাক্কা দেয়। আমি সিটকে শক্ত করে ধরে নিজেকে সামলে নিয়েছি। বাসটি রাস্তার ধার হতে খাদের দিকে পড়ে যেতে থাকলে বাসের জানালা দিয়ে বাহিরে চলে আসি। বের হয়ে দেখি কয়েকটি লাশ পড়ে আছে। জানা গেছে বাসের যাত্রী বেশিরভাগই গার্মেন্টস কর্মী। দুর্ঘটনায় নিহতদের মধ্যে দুজনের লাশ শনাক্ত করা গেলেও চাপা পড়ার কারণে অন্য নিহতদের পরিচয় জানা যায়নি। পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস মিলে নিহতদের লাশ উদ্ধার করেছি।

গাইবান্ধা: ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে গাইবান্ধার পলাশবাড়ি উপজেলায় যাত্রীবাহী একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের গাছে ধাক্কা খেয়ে ১৬ জন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৩০ জন। শনিবার ভোরে উপজেলার মহেশপুর এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। আহতদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। জানা যায়, ভোর ৫টার দিকে পলাশবাড়ীর মহেশপুর এলাকায় ঢাকা থেকে পঞ্চগড়গামী আলম এন্টারপ্রাইজ নামে একটি যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের গাছে ধাক্কা খেয়ে উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ৯ জন, হাসপাতালে নেওয়ার পথে ৬ জন ও হাসপাতালে নেওয়ার পর ১ জনের মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর আহতদের উদ্ধার করে পলাশবাড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, রংপুর মেডিকেল কলেজ ও বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নাটোর: নাটোর শহরের আলাইপুর এলাকায় ট্রাকচাপায় ইজিবাইকের ২ আরোহী নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও ২ জন। শনিবার সকাল ৬ টার দিকে শহরের কমেলা সুপার মাকের্টের সামনে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের মধ্যে একজন নলডাঙ্গা উপজেলার সোনাপাতিল গ্রামের মঙ্গল দেবনাথের স্ত্রী সুলতা রানী দেব ও অপরজন একই গ্রামের মৃত কার্তিক চন্দ্র দাসের ছেলে কানাই চন্দ্র । আহতদের মধ্যে মঙ্গল দেবনাথ ও তার মেয়ে আঁখি রানী দেবনাথ বৃষ্টিকে প্রথমে নাটোর সদর ও পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জানা যায়, শনিবার সকালে মঙ্গল দেবনাথের পরিবারসহ ৫ যাত্রী নিয়ে একটি ইজিবাইক নাটোর স্টেশন থেকে হরিশপুর ব্যাপষ্টিট মিশন হাসপাতালে যাচ্ছিল। পথে শহরের আলাইপুর এলাকায় কমেলা সুপার মার্কেটের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা বালি বোঝাই একটি ট্রাককে ওভারটেক করার সময় পেছন থেকে আরেকটি ট্রাক ওই ইজিবাইককে চাপা দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ইজিবাইকের যাত্রী সুলতা রানী দেব ও অজ্ঞাত একজন ঘটনাস্থলেই মারা যান। এ সময় সুলতারানী দেবের স্বামী ও মেয়ে বৃষ্টি আহত হন। খবর পেয়ে নাটোর ফায়ার স্টেশনের কর্মীরা ঘটনাস্থল থেকে আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে তাদের অবস্থার অবনতি হলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কে বাস-ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ট্রাকচালক ও হেলপার নিহত হয়েছেন। এ সময় কমপক্ষে আরও ১০ বাসযাত্রী আহত হয়েছেন। শনিবার সকাল ৬ টার দিকে জেলার রায়গঞ্জ উপজেলার কালিকাপুর নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত ট্রাকচালক শফিকুল ইসলাম (৩৫) সলঙ্গা থানার শামপুর গ্রামের জসিম ফকিরের ছেলে এবং হেলপার রফিকুল ইসলাম (২৫) একই গ্রামের দোহা শেখের ছেলে। হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ওসি আব্দুল কাদের জিলানী জানান, মহাসড়কের ওই স্থানে বালুবাহী একটি ট্রাক (যশোহর-ড-১১-০৮৮৩) অবৈধভাবে ওভারটেকিং করার সময় ঢাকা থেকে বগুড়াগামী আর.কে.পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের (ঢাকা মেট্রো-ব-১৫-০০৮১) সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ট্রাকের চালক ও হেলপার দুর্ঘটনাস্থলেই মারা যান। আহত হন কমপক্ষে ১০ বাস যাত্রী। তিনি জানান, খবর পেয়ে পুলিশ স্থানীয়দের সহায়তায় লাশ দু’টি উদ্ধার করে হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানায় নিয়ে আসে। আহতদের স্থানীয় বিভিন্ন ক্লিনিক ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুর্ঘটনার কারনে মহাসড়কে যানবাহন চলাচলে ঘন্টাব্যাপী বিঘ্ন ঘটে। সকাল ৮টার পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়েছে। পুলিশ বাস ও ট্রাক দু’টি জব্দ করলেও বাসের চালক-হেলপার পালিয়েছে।

গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জে বাসচাপায় মোটরসাইকেলের ২ অরোহী নিহত হয়েছেন। এ সময় কমপক্ষে ১৫ জন আহত হন। শনিবার সকাল পৌনে ৮টার দিকে গোপালগঞ্জ-টুঙ্গিপাড়া সড়কের গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার ঘোনাপাড়া নামক স্থানে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা রিসোর্স ইন্টিগ্রেশন সেন্টারের (রিক) গোপালগঞ্জ অফিসের অফিস রেজিষ্ট্রার ইমরান হোসেন (৩৮) ও মাঠ কর্মকর্তা পুলক ব্যাপারী (৩৪)। দুর্ঘটনায় মারাত্মক আহত রিকের গোপালগঞ্জ অফিসের ম্যানেজার রুবেল ফকিরসহ (৩৫) ১০ জনকে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অফিসের হিসাব রক্ষক সাইফুল ইসলাম জানান, ঈদের ছুটি শেষে ম্যানেজার রুবেল ফকির, মাঠ অফিসার ও অফিস রেজিষ্ট্রার অফিসের কাজে যোগ দিতে একটি মোটরসাইকেলে করে পিরোজপুর থেকে গোপালগঞ্জ আসছিলেন। তাদের সবার বাড়ি পিারাজপুরে। জানা যায়, বাগেরহাট থেকে ছেড়ে আসা গোপালগঞ্জগামী একটি লোকালবাস (নং গোপালগঞ্জ জ ০৫-০০৭) নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ঘোনাপাড়ায় একটি মোটরসাইকলেকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই দুইজন নিহত হন। মারাত্মক আহত হন মোটরসাইকেলের অপর আরোহী। পরে ওই বাসটি একটি ভ্যান, রাস্তার পাশে দাড়িয়ে থাকা অপর একটি লোকালবাসকে ধাক্কা দিয়ে দ্রুত গোপালগঞ্জের দিকে পালানোর সময় সড়কের আইল্যান্ডে আটকে যায়।

এছাড়াও জেলার মুকসুদপুর উপজেলায় বাসচাপায় লোকমান শেখ (৫০) নামে এক ভ্যানচালক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় কমপক্ষে ১০ বাসযাত্রী আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে গুরুতর ৬ জনকে মুকসুদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের দাসেরহাট নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। মুকসুদপুর থানার ওসি মোস্তফা কামাল পাশা জানিয়েছেন, খুলনা থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী হামীম পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস দাসেরহাটে বনফুল পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসকে ওভারটেক করতে গিয়ে ইঞ্জিনচালিতন একটি ভ্যানকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই ভ্যানচালক লোকমান মারা যান। এ সময় বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশের খাদে পড়ে যায়। এতে বাসের ১০ যাত্রী আহত হন। তিনি আরও জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা আহতদের উদ্ধার করে মুকসুদপুর উপজেলা হাসপাতালে পাঠিয়েছেন।

লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে সিএনজি ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে শাহেরা খাতুন ও মিলন নামের দুইজন নিহত হয়েছেন। শনিবার সকালে উপজেলার আজাদ নগরে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত শাহেরা খাতুন রামগতি উপজেলার চর আফজাল এলাকার আব্দুর রশিদের স্ত্রী ও মিলন একই এলাকার গোফরানের ছেলে। রা

সাভার: সাভারে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে এক যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন অন্তত ২০ জন। তাদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার সকালে মহাসড়কের আমিনবাজার তুরাগ এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। পুলিশ জানায়, সকালে তুরাগ এলাকায় একটি ট্রাক ইউর্টান নেওয়ার সময় রংপুর থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা দ্রুতি পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী নৈশ কোচের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় বাসটি দুমড়ে মুচড়ে মহাসড়কে ছিটকে পড়লে ঘটনাস্থলেই এক যাত্রী নিহত হন। এ ঘটনায় আহত ২০ যাত্রীকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালসহ বিভিন্ন স্থানে পাঠানো হয়েছে।

খবর পেয়ে সাভার মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুর্ঘটনা কবলিত গাড়ি দুটি সড়িয়ে নেয় এবং নিহত বাসযাত্রীর লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। আহতদের মধ্যে পাঁচজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানালেও প্রাথমিকভাবে হতাহতদের কোন পরিচয় জানাতে পারেনি পুলিশ।

সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহসীনুল কাদির বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত এক যাত্রীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

রাজবাড়ী: জেলার গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ঘাটে বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে ইমন (২০) নামের এক চালকের সহকারীর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার দুপুর ১২ টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ফরিদপুর থেকে দৌলতদিয়া ঘাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা একটি লোকাল বাস দুপুরে দৌলতদিয়া তেলের পাম্পের কাছে পৌঁছায়। এ সময় সড়ক পার হওয়ার জন্য অজ্ঞাত এক নারী দৌড় দিলে বাসটির চালক দ্রুত পাশ কাটতে গেলে হেলপার ইমন ছিটকে পড়ে বাসের চাকায় পিষ্ট হন। এ সময় স্থানীয়রা ইমনকে উদ্ধার করে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. নুরুল ইসলাম তাকে মৃত ঘোষণা করেন। গোয়ালন্দ ঘাট থানার এসআই সনাতন জানান, নিহত ব্যাক্তির নাম ছাড়া আর কোন তথ্যা আমরা পাইনি। তার পরিবারের সন্ধান করে খবর দেয়ার চেষ্টা চলছে।

Comments are closed.