rockland bd

নীলফামারীতে শতবর্ষী গাছ কর্তন; জড়িতদের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

0

নীলফামারীতে শতবর্ষী গাছ কর্তন; জড়িতদের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

জেলা প্রতিনিধি, নীলফামারী
রবিবার, বাংলাটুডে টোয়েন্টিফোর:
নীলফামারী শহরের শতবর্ষী গাছ কাটার সাথে জড়িতদের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। রবিবার দুপুর শহরের চৌরঙ্গী মোড়ে নীলফামারী বাসীর ব্যানারে ঘন্টাব্যাপী ওই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ ও শহরের একাধিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অংশ গ্রহণ করেন।
ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন শেষে সেখানে নীলফামারী পৌরসভা মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি দেওয়ান কামলা আহমেদের সভাপতিত্বে সাবেক উপ-সচিব মুক্তিযোদ্ধা এ. কে. আমিনুল হক, জেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজুর রশীদ মঞ্জু, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান আরিফা সুলতানা লাভলী ও জেলা কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাবের) সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান দুলাল প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। সমাবেশ শেষে জেলা প্রশাসক বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

নীলফামারীতে শতবর্ষী গাছ কর্তন

বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, নীলফামারী পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সামনের শতবর্ষী দুটি কাঠবাদাম ও দুটি রেইনট্রি কড়াই গাছ অকারণে কর্তন করতে জেলা পরিষদ অস্বচ্ছ একটি টেন্ডার প্রক্রিয়া দেখিয়ে এক লাখ ১১ হাজার ৫০০ টাকা বিক্রি করে। গত ১৭ই জানুয়ারী সকালে ওই গাছ ঠিকাদারের লোকজন কাটা শুরু করলে বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠে স্থানীয়রা। পরে বিক্ষুদ্ধদের দাবির প্রেক্ষিতে পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদর হস্তক্ষেপে গাছ কাটা বন্ধ করে ঠিকাদারের নিযুক্ত শ্রমিকরা।
তারা আরো দাবি জানান,‘শহরের কালেক্টরেট চত্ত্বরে ঐতিহ্যবাহী শতবর্ষী গাছগুলো পরিবেশ রক্ষার পাশাপাশি জেলা শহরের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করেছে। জেলা পরিষদ এসব সতেজ গাছ কাটা শুরু করেছে। গাছ কাটার প্রতিবাদ ও জড়িতদের বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান তারা।
এদিকে জেলা পরিষদের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. রবিউল ইসলাম বলেন,‘ঝুঁকিপূর্ণ ওই গাছগুলো কাটার ব্যাপারে পুলিশ সুপার আমাদের চিঠি দেন। আমরা যথাযথ প্রক্রিয়া শেষে ও জেলা প্রশাসকের অনুমতি নিয়ে স্থানীয় একটি সাপ্তাহিক পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়ে দরপত্রের মাধ্যমে গাছগুলো বিক্রি করি।’
অপরদিকে জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরিন তাঁর কার্যালয়ের সামনে স্মারকলিপি গ্রহনকালে বলেন,‘ওই গাছ কাটার ব্যাপারে আমি কোন অনুমতি প্রদান করিনি।’ বিষয়টি নিয়ে যথাযত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানান তিনি।

বিজয় চক্রবর্তী কাজল/আর এইচ

Comments are closed.