rockland bd

রাস্তার পাশে গুলিবিদ্ধ লাশ: পুলিশ বলছে মাদক ব্যবসায়ী, স্ত্রী বলছে তুলে নিয়েছে

0

নিহত মইজুদ্দিন আহমেদ টুলু (৪০)

জেলা প্রতিনিধি, সাতক্ষীরা
বুধবার, বাংলাটুডে টোয়েন্টিফোর:
সাতক্ষীরার তালা উপজেলার তেতুলিয়া বিশ্বাসপাড়া এলাকার খুলনা-পাইকগাছা সড়কের পাশ থেকে বুধবার ভোরে এক ব্যক্তির গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধারের কথা জানিয়েছে পুলিশ।
নিহত মইজুদ্দিন আহমেদ টুলু (৪০) সাতক্ষীরা সদর উপজেলার শিকড়ি এলাকার শামসুল হক সরদারের ছেলে।
মরদেহের পাশ থেকে একটি মোটরসাইকেল, ১৬০ পিস ইয়াবা ও ১৫ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধারের কথা জানিয়ে পুলিশ বলছে, সে মাদক ব্যবসায়ী। অভ্যন্তরীণ কোন্দলে গোলাগুলিতে এই হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে বলে ধারণা পুলিশের। তবে, পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, তাকে আগেই তুলে নেওয়া হয়েছিল।
তালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মেহেদী রাসেল বলেন, খুলনা-পাইকগাছা সড়কের তেঁতুলিয়া বিশ্বাসপাড়া মোড় এলাকার রাস্তার পাশে মরদেহটি স্থানীয়রা দেখতে পায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে। এসময় সেখান থেকে একটি টিভিএস মোটর সাইকেল, ১৬০ পিস ইয়াবা ও ১৫ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়।
‘ধারণা করছি, সে একজন মাদক ব্যবসায়ী। ভোর রাতের দিকে মাদক ব্যবসায়ীদের মধ্যে বিরোধের জের ধরে এ ঘটনা ঘটছে’, বলেন ওসি।
তিনি আরও জানান, মরদেহের পাশে পড়ে থাকা একটি ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি পেয়েছি। সেটির ঠিকানা অনুযায়ী সে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার শিকড়ি এলাকার শামসুল হক সরদারের ছেলে ময়েজউদ্দিন আহম্মেদ টুলু।
তবে নিহত মইজুদ্দিন টুলুর স্ত্রী রহিমা বেগম ওরফে রেখা দাবি করেন, ‘আমার স্বামী আগে মাদক ব্যবসা করলেও এখন তিনি রড, সিমেন্টের ব্যবসা করতেন। গত ১৩ জানুয়ারি সন্ধ্যায় ২০ হাজার টাকাসহ মোটরসাইকেলে করে তিনি সাতক্ষীরা যাচ্ছিলেন। এ সময় গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ পরিচয়ে তাঁকে তুলে নিয়ে যায় কয়েক ব্যক্তি।’
‘টুলুকে একটি প্রাইভেটকারে করে নিয়ে যাওয়া হয়। স্থানীয় একটি দোকানের সিসিটিভিতে তার ছবিও রয়েছে। এরপর থেকেই টুলুর মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।’
রেখা আরো জানান, স্বামীর খোঁজ চেয়ে তিনি ১৪ জানুয়ারি সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

আর এইচ

Comments are closed.