rockland bd

দাম পাওয়ায় মধ্যাঞ্চলে বেড়েছে পেঁয়াজের চাষ

0

মধ্যাঞ্চল সংবাদদাতা
শনিবার, বাংলাটুডে টোয়েন্টিফোর:

ভালো দাম পাওয়ায় মধ্যাঞ্চলে বেড়েছে পেঁয়াজের চাষ। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ভালো ফলনের আশা করছেন কৃষকরা। কৃষি কর্মকর্তারা জানাচ্ছেন, গত কয়েক বছরে পুরো মধ্যাঞ্চল জুড়েই পেয়াজের চাষ অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। কৃষকরা বলছেন, চলতি বছর পেয়াজ বিক্রি করে কয়েক কোটি আয় করতে পারবেন চাষীরা।
খোজ নিয়ে জানা গেছে, দেশের মধ্যাঞ্চলের মাদারীপুর, শরীয়তপুর, গোপালগঞ্জ, ফরিদপুর ও রাজবাড়ি জেলায় গত কয়েক বছরের তুলনায় চলতি মৌসুমে বেশি পরিমান জমিতে পেঁয়াজের চাষ করা হয়েছে। এসব অঞ্চলের কৃষকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, বিঘা প্রতি পেঁয়াজের উৎপাদন খরচের চেয়ে তিন থেকে চারগুন বেশি দাম পাওয়া যায়। ফলে বেশি দাম পাওয়ার কারণেই মধ্যাঞ্চলে পেয়াজের আবাদ বেড়েছে।
মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামের পেয়াজ চাষী আবদুর রব মাতুব্বর বলেন, চলতি বছর আমি দুই বিঘা জমিতে উচ্চফলনশীল পেঁয়াজের চাষ করেছি। ফলন খুব ভালো হয়েছে। ইতোমধ্য পেয়াজের শাক বিক্রি করেই আমি কমপক্ষে ১০ হাজার টাকা বিক্রি করেছি। আশা করছি, বাজারে গত বছরের মত দাম পেলে লাভবান থাকব।
কালকিনির আরেক চাষী মোফাজ্জেল কাজী বলেন, আমি গত বছর ১২’শ টাকা থেকে ১৫’শ টাকা পর্যন্ত প্রতি মণ পেঁয়াজ বিক্র করেছিলাম। আল্লাহর রহমতে এবারো আমার এক বিঘা জমিতে খুব ভালো পেয়াজ হয়েছে। একই ধরনের কথা বললেন এই অ লের আরো বেশ কয়েকজন পেঁয়াজ চাষী।
কালকিনি উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মিল্টন বিশ্বাস বলেন, ‘আগে কালকিনি উপজেলায় তেমন পেয়াজের চাষ হতো না। কিন্তু গত দুই বছর ধরে উপজেলার বেশ কিছু ইউনিয়নে পেয়াজের চাষ বেড়েছে। এই ধারা আগামীতেও অব্যাহত থাকবে।
মাদারীপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক জিএমএ গফুর জানিয়েছেন, চলতি বছর মাদারীপুর জেলার চারটি উপজেলায় ৪ হাজার ১’শ ২৫ হেক্টর জমিতে দেশী ও উচ্চফলনশীল পেয়াজের চাষ করা হয়েছে। শুধু মাদারীপুরেই নয়। মধ্যাঞ্চলের মানে কৃষি কর্মকর্তাদের সহযোগিতায় বৃহত্তর ফরিদপুরের ৫ টি জেলাতেই চলতি বছর পেয়াজের খুব ভালো ফলন হয়েছে। এবং গত বছরের চেয়ে চাষের পরিমানও বেড়েছে।
রিপনচন্দ্র মল্লিক/রাকিব

Comments are closed.