rockland bd

প্রতিবন্ধী তারা মিয়ার প্রতি সাহায্যের হাত বাড়ালেন জেলা প্রশাসক

0

নেত্রকোনা প্রতিনিধি
শনিবার, বাংলাটুডে টোয়েন্টিফোর:
নেত্রকোনার দুর্গাপুরের প্রতিবন্ধী তারা মিয়ার প্রতি সাহায্যের হাত বাড়ালেন নেত্রকোনার জেলা প্রশাসক মইনউল ইসলাম। প্রতিবন্ধী তারা মিয়ার মেয়েকে আর্থিক সহায়তা প্রদান এবং তাকে সব ধরণের সহায়তা প্রদানের জন্য স্থানীয় প্রশানসনকে নির্দেশ দিলেন। জানা গেছে, জেলার দুর্গাপুরের তারা মিয়া প্যারালাইজড হওয়া সত্বেও এক হাত ও এক পায়ে রিকশা চালান। আর্থিক অনটনের মধ্যে থেকে মেয়ে ঝুমা আক্তার ও ছেলে মোহাম্মদ মাসুমকে লেখাপড়া করাচ্ছেন। কারো কাছে কোন দিন হাত পাতেন নি। মেয়ে ঝুমা আক্তার দুর্গাপুরের সুসং সরকারি মহাবিদ্যালয় থেকে এ বছর এইচএসসি পরীক্ষা দেবে এবং ছেলে মোহাম্মদ মাসুম ঢাকার মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে সপ্তম শ্রেণিতে পড়ে। তারা মিয়ার জীবন সংগ্রামের কথা জাতীয় একটি সংবাদপত্রে গত মঙ্গলবার প্রকাশিত হয়। বিষয়টি জানতে পেরে জেলা প্রশাসক প্রতিবন্ধী তারা মিয়ার মেয়ে দুর্গাপুরের সুসং সরকারি মহাবিদ্যালয়ে ব্যবসায় শিক্ষায় দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়–য়া ঝুমা আক্তারকে দুর্গাপুর ইউএনও অফিসে বৃহস্পতিবার দুপুরে ডেকে এনে চার হাজার টাকার চেক প্রদান করেন। জেলা প্রশাসক মঈউনল ইসলাম দুর্গাপুর উপজেলা সমাজ সেবা অফিসারকে তারা মিয়ার জন্য প্রতিবন্ধী ভাতা, ইউএনওকে সরকারি খাস জমি বন্দোবস্ত দিয়ে বাসস্থানের ব্যবস্থা করে দেয়ার জন্য নির্দেশ দেন।
সুসং সরকারি মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ ড. ভবানী সাহা বলেন, প্রতিবন্ধী তারা মিয়ার মেয়ে ঝুমা আক্তার আমার কলেজে লেখাপড়া করে। এবার সে এইচএসসিতে ফরমফিলাপ করেছে। ঝুমাকে ডেকে নিয়ে স্যার ( জেলা প্রশাসক) চার হাজার টাকার চেক দিয়েছেন।
নেত্রকোনার জেলা প্রশাসক মঈনউল ইসলাম বলেন, প্রতিবন্ধী তারা মিয়ার মেয়েটিকে আর্থিকভাবে কিছু সহায়তা করা হয়েছে। ওই পরিবারটিকে পূনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হবে। আবেদনের প্রেক্ষিতে তারা মিয়ার পরিবারকে সব ধরনের সহায়তা প্রদানের জন্য স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

খলিলুর রহমান শেখ/আর বি

Comments are closed.