rockland bd

প্রার্থী ও এজেন্টদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সিইসির নির্দেশ

0

শনিবার দুপুরে আগারগাঁও নির্বাচন ভবনে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন সিইসি কেএম নুরুল হুদা।

ডেস্ক প্রতিবেদন, ঢাকা
শনিবার, বাংলাটুডে টোয়েন্টিফোর:
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সকলের জন্য নিরাপদ পরিবেশ সৃষ্টি করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা।
প্রার্থীর এজেন্টদের নির্বাচনী দায়িত্ব পালনে পূর্ণ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি
আজ শনিবার দুপুরে আগারগাঁও নির্বাচন ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ নির্দেশ দেন।
সিইসি বলেন, ‘আগামীকাল (রবিবার) নির্বাচনে সকলের জন্য নিরাপদ পরিবেশ তৈরি করতে এবং সহিংস অথবা নাশকতামূলক অবস্থার সৃষ্টি হলে তা কঠোর হাতে দমন করার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দিচ্ছি।’
তিনি আরও বলেন, ‘অবৈধভাবে কোনো মহল ভোটকেন্দ্রে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি করার চেষ্টা করলে দায়িত্বরত আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তা অবশ্যই নিয়ন্ত্রণ করবে।’
সিইসি নুরুল হুদা সতর্ক করে দিয়ে বলেন, ‘কোনো বাহিনীর নির্লিপ্ততার কারণে অথবা নিষ্ক্রিয় ভূমিকার কারণে কোনো কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ ব্যাহত হলে সে অধিক্ষেত্রের বাহিনীকে দায়ী করে তদন্ত করা হবে এবং অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’
তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিক দল, প্রার্থী, তাদের সমর্থক ও কলাকুশলীদের বার বার অনুরোধ করেছি, তারা যেন নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে চলেন। ধৈর্য্য ও সহনশীলতার পরিচয় দেন। একে অপরের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করেন। নির্বাচনী প্রতিযোগিতা যেন সহিংসতায় পরিণত না হয়।’
‘কিন্তু দুঃখের সাথে লক্ষ্য করেছি, তবুও নির্বাচনী সহিংসতা ঘটেছে। তাতে জানমালের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। হতাহতের ঘটনা ঘটেছে, সুষ্ঠু পরিবেশ ব্যাহত হয়েছে, এগুলো আমাদের কাম্য ছিল না,’ যোগ করেন তিনি।
কেএম নুরুল হুদা বলেন, ‘সহিংসতার কারণে যেখানে ফৌজদারী অপরাধ সংঘটিত হয়েছে, সেখানে নিরপেক্ষ তদন্ত করে দায়ী ব্যক্তিদেরকে বিচারের সামনে হাজির করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিচ্ছি।’
গণমাধ্যমের খবরের উদ্ধৃতি দিয়ে সিইসি বলেন, প্রার্থীর এজেন্টদের হয়রানি করা হচ্ছে, তা কোনভাবেই কাম্য নয়। কোন এজেন্টের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট কোন ফৌজদারী কোন অভিযোগ না থাকলে পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার বা হয়ারনি করবে না।
তিনি আরও বলেন, নির্বাচনী দায়িত্ব পালনে তাদেরকে পূর্ণ নিরাপত্তা দিতে হবে। এজেন্টদেও দায়িত্ব অনেক, তারা প্রার্থীর প্রতিনিধিত্ব করেন। তারা প্রার্থীর স্বার্থে কাজ করেন।

আর এইচ

Comments are closed.