rockland bd

নরসিংদীতে ধানের শীষের ক্যাম্প ও গণসংযোগে হামলা, শিশু গুলিবিদ্ধসহ আহত ৩৫

0

ধানের শীষের ক্যাম্প ও গণসংযোগে হামলায় আহত শিশু।

নরসিংদী প্রতিনিধি,
শনিবার, বাংলাটুডে টোয়েন্টিফোর:
নরসিংদীর শিবপুর ও বেলাবতে ধানের শীষের কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলা করেছে আওয়ামী লীগের সমর্থকরা। পৃথক দুটি ঘটনায় ধানের শীষের নির্বাচনী ক্যাম্প, গাড়ি ও মোটরসাইকেল ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এতে তৃতীয় শ্রেণীর এক শিশুসহ ৩৫ জন আহত হয়েছে।
আজ শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় নরসিংদী-৪ নির্বাচনী এলাকার বেলাব উপজেলার বারৈচায় এবং দুপুর সাড়ে ১২টায় নরসিংদী-৩ শিবপুরে ধানের শীষের প্রার্থী মন্জুর এলাহীর প্রধান নির্বাচনী ক্যাম্পে পৃথক হামলা ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, নরসিংদী-৪ (বেলাব-মনোহরদী) নির্বাচনী আসনে বিএনপি দলীয় ধানের শীষের প্রার্থী সরদার শাখাওয়াৎ হোসেন বকুল নির্বাচনী প্রচারণার অংশ হিসেবে বেলাব উপজেলার বারৈচা এলাকায় কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে গণসংযোগ করছিলেন। এ সময় তার কর্মী-সমর্থকরা ‘ধানের শীষ, ধানের শীষ’ বলে শ্লোগান দিতে থাকলে বেলা ১১টার দিকে লাঠিসোটা হাতে নিয়ে ২০/২৫ জনের একদল যুবক তাদের ওপর হামলা করে।
লাঠিপেটার এক পর্যায়ে ধানের শীষের প্রার্থী সরদার শাখাওয়াৎ হোসেন বকুল প্রাণ বাঁচাতে দৌড়ে গিয়ে বিজিবি ক্যাম্পে আশ্রয় নেয়। পরে বিজিবি সদস্যরা ঘটনাস্থলে এলে লাঠিসোটা হাতে থাকা যুবকরা সরে যায়।
বিজিবি সদস্যরা প্রার্থী সরদার শাখাওয়াৎ হোসেন বকুলকে তাদের গাড়িতে করে সেখান থেকে সরিয়ে নিয়ে দূরে নিরাপদ স্থানে নামিয়ে দেয়। এ ঘটনায় ধানের শীষের ৭জন কর্মী-সমর্থক আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।
এ ব্যাপারে সরদার শাখাওয়াৎ হোসেন বকুল জানান, ‘আওয়ামী সন্ত্রাসীরা আমাকে মেরে ফেলার উদ্দেশ্যে এ হামলা চালায়। আমি অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে গেছি।’
অপর ঘটনাটি ঘটে নরসিংদী-৩ শিবপুর উপজেলার কলেজ গেইটস্থ ধানের শীষের প্রধান নির্বাচনী ক্যাম্পে।
বিএনপি দলীয় প্রার্থী মন্জুর এলাহী জানান, ‘দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আমি আমার দলীয় নেতা কর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে প্রধান নির্বাচনী ক্যাম্পে অবস্থান করছিলাম। এ সময় আগ্নেয়াস্ত্রসহ লাঠিসোটা হাতে ২৫/৩০ জন দূর্বৃত্ত হামলা চালায়।
এ সময় তারা আমি এবং আমার নেতা-কর্মীদের লক্ষ্য করে ৩২ রাউন্ড গুলি ছুঁড়ে। তাদের ছুঁড়া গুলিতে মাহদিয়া নামে শিবপুর দারুল উলুম মাদ্রাসার তৃতীয় শ্রেণির এক পথচারী শিশু গুলিবিদ্ধ হয়। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাকে নরসিংদী জেলা হাসপাতাল নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে।
আওয়ামী ক্যাডারদের হামলায় আমার গাড়ির ড্রাইভার শামীমসহ মোট ২৮ জন আহত হয়। তারা নরসিংদী জেলা হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। হামলাকারীরা আমার নির্বাচনী ক্যাম্পের সামনে রাখা প্রচার কাজে ব্যবহৃত ১০টি গাড়ী ও কর্মী-সমর্থকদের ১৮টি মোটর সাইকেল ভাংচুর করে।’
মন্জুর এলাহী বলেন, ‘সকল প্রার্থীর প্রচারণায় লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডের পরিবেশে রয়েছে বলে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ বলা হলেও বাধা ও হামলার মুখে বিরোধী দলের প্রার্থীরা প্রচার কাজে মাঠে নামতে পারছে না। এরই নাম কি লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড?’
তিনি আরো বলেন, ‘শিবপুরে ধানের শীষের গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। শিবপুরের মানুষ আজ শাসকদলে অন্যায় অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে উঠেছে। সাধারণ ভোটাররা তাদের দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। নিশ্চিত পরাজয় জেনে নির্বাচন থেকে আমাদের সরিয়ে দিতে হামলা-মামলা দিয়ে বার বার ভাংচুরের ঘটনা ঘটাছে।’

আর এইচ

Comments are closed.