rockland bd

প্রশাসন, ইসি ও বিচার বিভাগ গণতন্ত্রকে ধ্বংস করাতে এক জোট হয়েছে: মির্জা ফখরুল

0

গুলশানে বিএনপি চেয়ারপার্সনের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা
শুক্রবার, বাংলাটুডে টোয়েন্টিফোর:
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নির্বাচন কমিশন (ইসি), সরকার এমনকি বিচার বিভাগ গণতন্ত্রকে ধ্বংস করছে। তিনি বলেছেন, নির্বাচন কমিশন যে প্রার্থীকে বৈধ বলবে, সেই প্রার্থীকে অবৈধ বলার এখতিয়ার হাইকোর্টের আছে কি?
শুক্রবার রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপার্সনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।
বিচার বিভাগের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে ফখরুল ইসলাম বলেন, বিচার বিভাগ ‘উদ্দেশ্যমূলকভাবে’ বিএনপির প্রার্থীদের বাতিল করছেন। হাইকোর্ট যে আদেশ দিয়েছেন, এই আদেশটা এখন আমরা কী বলব? কী বলব আমরা সেটাকে? এটাকে কি আইনসম্মত বলব? নাকি বেআইনি বলব? নাকি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলব? তিনি বলেন, একই আদালতে একই কারণে একজনকে বৈধ আর আরেকজনকে অবৈধ বলা হয়েছে।
ফখরুল বলেন, ‘এখন কোনো লেভেল-প্লেয়িং ফিল্ড নেই। আমরা বিস্ময়ের সাথে দেখছি যে নির্বাচন কমিশন, প্রশাসন এমনকি বিচার বিভাগ পর্যন্ত গণতন্ত্রকে ধ্বংস করছে।’
‘এটা আমাদের জন্য কেবল আশ্চর্যজনকই নয়, গভীর উদ্বেগেরও। আমি দায়িত্ব নিয়েই কথাগুলো বলছি’, যোগ করেন তিনি।
নির্বাচন এখন প্রহসন হয়ে দাঁড়িয়েছে উল্লেখ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, এখন জনমনে প্রশ্ন উঠেছে যে জাতীয় নির্বাচনের জন্য দেশে উপযুক্ত পরিবেশ আছে কিনা।
ফখরুল বলেন, আমরা আশা করেছিলাম তফসিল ঘোষণার পর নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার বন্ধ হবে এবং তারা নির্বিঘ্নে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যেতে পারবেন। কিন্তু তেমনটা হয়নি।
বর্তমান পরিস্থিতিতে সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে না মন্তব্য করে বিএনপির সিনিয়র এ নেতা বলেন, আমরা সুষ্ঠু নির্বাচনের কোনো সম্ভাবনা দেখছি না।
দলের প্রতিটি পদক্ষেপ রাষ্ট্রের প্রত্যেকটা অংশে বাধার সম্মুখীন হচ্ছেন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমার দলের মনোনয়ন আমি কাকে দেব সেটাও হাইকোর্ট থেকে বলে দেয়া হয়েছে। তাহলে আমি কী করে বলব, হাইকোর্টে থেকে আমি সুবিচার ও ন্যায়বিচার পাচ্ছি।’
বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, ‘যেভাবে একটি গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক দলের প্রার্থীদের প্রার্থিতা বাতিল করা হচ্ছে তাতে জনমনে ধারণা তৈরি হয়েছে, বিচার বিভাগও সরকারের ইচ্ছা অনুসারে কাজ করছে। এই ধরনের কার্যকলাপে বিচার বিভাগের ওপর জনগণের আস্থা হ্রাস পাচ্ছে।’

আর এইচ

Comments are closed.