rockland bd

চৌগাছা-ঝিকরগাছা আসনে দুই যুগ পর ধানের শীষ

0

যশোর প্রতিনিধি
সোমবার, বাংলাটুডে টোয়েন্টিফোর
জাতীয় সংসদের ৮৬, যশোর-২ (চৌগাছা-ঝিকরগাছা) আসনে প্রায় দুই যুগ পর জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ধানের শীষে ভোট দেওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, এ আসনে সর্বশেষ ১৯৯৬ সালের ১২ জুন অনুষ্ঠিত সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী হিসেবে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেন যশোর জেলা বিএনপির বর্তমান কমিটির সহ-সভাপতি ও যশোর জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ইসহক। সেই নির্বাচনে তিনি আওয়ামী লীগের প্রার্থী সাবেক বিদ্যুৎ জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের কাছে পরাজিত হন। সেই নির্বাচনে জামায়াত নেতা মুহাদ্দিস আবু সাঈদ মোহাম্মদ শাহাদৎ হুসাইন তৃতীয় অবস্থানে ছিলেন। ২০০১ সালের অষ্টম সংসদ নির্বাচনে চারদলীয় জোটের মনোনয়ন পান জামায়াত নেতা মুহাদ্দিস আবু সাঈদ মোহাম্মদ শাহাদৎ হুসাইন। তিনি জামায়াতের প্রতীক দাড়িপাল্লা নিয়ে নির্বাচন করে অধ্যাপক রফিকুল ইসলামকে পরাজিত করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এরপর ২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদেও তিনি তৎকালীন চারদলের প্রার্থী হয়ে দাড়িপাল্লা নিয়ে নির্বাচন করেন। সেবার তিনি মহাজোটের প্রার্থী মোস্তফা ফারুক মোহাম্মদের কাছে হেরে যান। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত দশম সংসদ নির্বাচনে বিএনপি-জামায়াত নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট অংশ না নেওয়ায় সেবারও ধানের শীষের কোনো প্রার্থী ছিলেন না।একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও বিরোধী জোটের মনোনয়ন পেয়েছেন জামায়াত নেতা মুহাদ্দিস আবু সাঈদ মোহাম্মদ শাহাদৎ হুসাইন। তবে এবারে জামায়াতের নিবন্ধন না থাকায় তিনি জোটের প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে। ফলে এই আসনের বিএনপি নেতা-কর্মীরা দীর্ঘ ২২ বছর ছয় মাস পরে ধানের শীষে ভোট দেওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন।অবশ্য ২০১৬ সালের জুন মাসে অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে ধানের শীষে নির্বাচন করেন বিএনপি নেতারা।তবে সেই নির্বাচনে কোনো কোনো এলাকায় বিএনপির প্রার্থী ছিলেন না।এর আগে ২০০৮ সালের নির্বাচনে ধানের শীষের প্রার্থী দেওয়ার দাবিতে বিএনপি নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ সমাবেশ করলেও জামায়াত নেতাকে প্রার্থী করা হয়। ফলে ধানের শীষে ভোট দিতে পারেননি তারা।
সোহেল রানা/আর বি

Comments are closed.