rockland bd

২৫ কোটি টাকা উপবৃত্তি পেল তানোরের শিক্ষার্থীরা

0

নিজেস্ব প্রতিবেদক
বৃহস্পতিবার, বাংলাটুডে টোয়েন্টিফোর:
রাজশাহী তানোর উপজেলায় শিক্ষাঙ্গনে আগের সরকারগুলোর চেয়ে বর্তমান সরকারের সময় উন্নয়ন অনেক বেশি। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের কাছে ব্যারিষ্টার আমিনুল হকের চেয়ে ওমর ফারুক চৌধুরী অনেক বেশী জনপ্রিয়। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটারদের কাছে শিক্ষার উন্নয়নের বিষয়টি গুরুত্ব ভূমিকা বহন করবে। উপজেলা শিক্ষা অধীদপ্তর সূত্রে জানা যায়, ১৯৯১ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ে ৩৮হাজার ৭শত ৪৪জন শিক্ষার্থীর মধ্যে উপবৃত্তির টাকা প্রদান করা হয়েছে ৫ কোটি ২৯ লাখ ৫৫ হাজার ৭৫ টাকা, ২০০৯ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত ৮৫ হাজার ৯শত ৩০জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ২৯ কোটি ৬৯ লাখ ৪১ হাজার ৮শত ৪৩টাকা। যা ১৫ বছরের চেয়ে ১০ বছরে শিক্ষার্থীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে ৪৭হাজার ১শত ৮৬জন এবং ২৪ কোটি ৩৯ লাখ ৮৬হাজার ৭ শত ৬৮ টাকা বেশী উপবৃত্তি প্রদান করা হয়েছে। এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর হস্তক্ষেপে ১৯৯১ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা বছরের প্রথমে বই প্রাপ্তিতে বিলম্ব হলেও ২০০৯ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত বছরের প্রথমেই উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা বিনা মূলে নতুন বই হাতে পেয়েছে। রাজশাহী-১ (তানোর- গোদাগড়ী) আসনে একটানা ১৯৯১ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত ৩বার এমপি নির্বাচিত হয়ে ১৫ বছরের মধ্যে ১০বছরই ব্যারিষ্টার আমিনুল হক গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী ও মন্ত্রী’র দায়িত্ব পালন করেছেন কিন্ত ওমর ফারুক চৌধুরী গত ২০০৯ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত এমপি নির্বাচিত হয়ে মাত্র ১৪ মাস প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন। এবিষয়ে স্থানীয় জনমতে বর্তমান এমপি পুনরায় নির্বাচিত হলে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যহত থাকবে বলে সকলের প্রত্যাশা।

ওবায়দুল ইসলাম রবি/এবিএস

Comments are closed.