rockland bd

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া ক্রমেই জটিল হচ্ছে

0

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া ক্রমেই জটিল হচ্ছে

ডেস্ক প্রতিবেদন, বাংলাটুডে টোয়েন্টিফোর-
বাংলাদেশ ও মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ নভেম্বরের মাঝামাঝি থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া লাখ লাখ রোহিঙ্গাকে মিয়ানমারে ফিরিয়ে নেয়ার কাজ শুরু করার ঘোষণা দিলেও কথা মতো কাজ হবে কিনা তা এখনো স্পষ্ট নয়।
প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু করা হলেও বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া উদ্বাস্তু সংখ্যার উপর এর প্রভাব পড়বে কিনা তাও অনিশ্চিত।
গত বছর আগস্টের শেষ দিকে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে দেশটির সেনাবাহিনী রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে ‘জাতি নির্মুল’ অভিযান শুরু করলে ৭ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়।
এরপর থেকে বাংলাদেশের উদ্বাস্তু শিবিরে হাজার হাজার রোহিঙ্গা শিশুর জন্ম হয়েছে। পাশাপাশি এখনো রাখাইন থেকে রোহিঙ্গারা পালিয়ে আসছে বলে ১ নভেম্বর রিলিফওয়েবের এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।
চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে ১ অক্টোবর পর্যন্ত নতুন ১৪,০০০ রোহিঙ্গার আগমনের কথা জানা গেছে। ওয়েবসাইটটি আরো জানায়, অনেক উদ্বাস্তু তাদের ভবিষ্যৎ নিয়ে উদ্বিগ্ন। তারা যদিও ফিরে যেতে চায় কিন্তু নাগরিকত্ব, আইনি অধিকার, সেবা ও ন্যায় বিচার পাওয়া এবং ক্ষতিপূরণের প্রশ্নগুলো সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত তারা ফিরতে চায় না।
মিয়ানমারের বেসামরিক ও সামরিক কর্তৃপক্ষের এসব দাবি মানার সম্ভাবনা খুবই কম। কারণ তারা রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশ থেকে আসা অবৈধ অভিবাসী বলে মনে করে।
৩১ অক্টোবর পর্যন্ত মাত্র ২৪,৮৭৪ রোহিঙ্গাকে মিয়ানমারের বাসিন্দা হিসেবে যাচাই সম্পন্ন হয়েছে। বাংলাদেশ ও ইউএনএইচসি আর যৌথভাবে এই যাচাই করে। তবে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ এই যাচাইকে স্বীকার করেনি।
এদিকে, উদ্বাস্তু শিবিরে গাদাগাদি করে রোহিঙ্গারা বাস করছে। ঘূর্ণীঝড়ের মতো দুর্যোগের কাছে এগুলো বেশ নাজুক। উদ্বাস্তুদের অন্যত্র সরিয়ে নেয়ার সুযোগও কম।-সাউথ এশিয়ান মনিটর

আর এইচ

Comments are closed.