rockland bd

রাবিতে ‘হিরণ্যসম্বিত’ ও ‘রুদ্র’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

0

রিজভী আহমেদ, রাবি প্রতিনিধি
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ও কবি অনীক মাহমুদের ষাটতম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ‘হিরণ্যসম্বিত’ ও ‘রুদ্র’ নামের দুটি গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। গতকাল বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ গ্রন্থ দুটির মোড়ক উন্মোচন করেন রাজশাহীর নর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আব্দুল খালেক। বিশ্ববিদ্যালয়ের কাহ্নপা সাহিত্যচক্র এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনীক মাহমুদকে নিয়ে হিরণ্যসম্বিত গ্রন্থে ১৪৫ জন ও রুদ্র গ্রন্থে ৭৩ জন লেখকের লেখা বিভিন্ন প্রবন্ধ, গল্প, কবিতা সংকলন করা হয়।
এসময় অধ্যাপক আব্দুল খালেক বলেন, ‘কবি অনীক মাহমুদের কবিতায় শ্বাশ্বত বাঙালির কণ্ঠধ্বনি প্রতিফলিত হয়। বাংলা সাহিত্যের প্রায় প্রতিটি শাখাতেই তাঁর বিচরণ রয়েছে। অসাধারণ তাঁর কবি প্রতিভা। কবিরা তখনই স্বার্থক হয় যখন তারা অন্যের না বলা কথাগুলো বলতে বা প্রকাশ করতে পারেন। অনীম মাহমুদ তাদেরই একজন। আমি নিজেকে খুবই ভাগ্যবান মনে করছি। কারণ আমি শিক্ষক হিসেবে ব্যর্থ হইনি। আমি অনীক মাহমুদের মতো একজনের শিক্ষক।’ এ সময় তিনি অনীক মাহমুদের উত্তরোত্তর সফলতা কামনা করেন।
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক সরওয়ার মুর্শেদ রতনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী নিউ গভ. ডিগ্রি কলেজের প্রাক্তন উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক গোলাম কবির। আলোচক ছিলেন নর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ট্রাস্টের চেয়ারম্যান অধ্যাপক রাশেদা খালেক, রাবির শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক আবুল হাসান চৌধুরী। স্বাগত বক্তব্য দেন কাহ্নপা সাহিত্যচক্রের সভাপতি ও রাবির বাংলা বিভাগের শিক্ষক মানিকুল ইসলাম।
অনুষ্ঠানের শুরুতে আমন্ত্রিত অতিথিদের ফুলেল শুভেচ্ছা ও উত্তরীয় প্রদান করা হয়। এ সময় লেখক অনিক মাহমুদকে সম্মাননার ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে অনীক মাহমুদকে নিয়ে লেখা একটি মানপত্র পাঠ করেন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক তানিয়া তহমিনা সরকার। স ালনা করেন বিভাগের আরেক সহকারী অধ্যাপক ড. সুমাইয়া খানম।
১৯৫৮ সালের ২১ নভেম্বর কবি অনীক মাহমুদ রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার মচমইল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৭ সাল থেকে তিনি লেখালেখি শুরু করেন। ১৯৯৪ সালে লেখকনাম সংক্রান্ত একটি এফিডেভিট সম্পাদন করেছেন। উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ালেখাকালীন তিনি নাটকে অভিনয় শুরু করেন। মচমইল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৭৬ সালে এসএসসি এবং রাজশাহী কলেজ থেকে ১৯৭৮ সালে এইচএসসি পাশ করেন। এরপর ১৯৮২ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা বিভাগে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। বর্তমানে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে অধ্যাপনার পাশাপাশি লেখালেখি চালিয়ে যাচ্ছেন। এ পর্যন্ত তাঁর লেখা একশোটিরও বেশি গ্রন্থ প্রকাশ হয়েছে।
রাকিব/৩১.০১.২০১৯

Comments are closed.