rockland bd

বিসিবিতে নির্বাচনের উত্তেজনার মধ্যেই ৭ পরিচালক আসছেন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায়

0

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)

বিটি২৪ রিপোর্ট

মিরপুরে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) নির্বাচনের উত্তেজনায় কাঁপছে মিরপুর শেরে-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে অবস্থিত বিসিবি অফিস। সেই উত্তাপ ছড়িয়েছে স্টেডিয়ামজুড়ে। সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিনে বেশ কয়েকজন প্রার্থী সমর্থকদের দিয়ে শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের মূল ফটকের সামনে শো-ডাউনও করান।

তবে এই উত্তেজনাকর পরিস্থিতির ভেতরেও কয়েকজন প্রার্থী এবারও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হওয়ার পথে রয়েছেন। প্রতিপক্ষদের অগ্রিম ‘ম্যানেজ’ করে তারা জয়ের পথে বলে শোনা গেলেও এখনও এই বিষয়ে কোনও পক্ষ আনুষ্ঠানিক অভিযোগ করেনি। ফলে বিনা ভোটে জয়ী হওয়ার দৌড়ে থাকা প্রার্থীদেরও কোনও জবাব দিতে হচ্ছে না।

নির্বাচনে মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ সময় পার হওয়ার পর জানা গেছে, বিসিবির ২৫ পরিচালকের মধ্যে ক্যাটাগরি-১ থেকে ৭ কাউন্সিলর বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। তাদের জয়ের পথে এখন কেবল একটাই বাধা, তা হচ্ছে মনোনয়নপত্র বাছাই পর্ব। ফরমটি সঠিকভাবে পূরণ করে থাকলে এবং প্রদত্ত তথ্যে গড়মিল না থাকলে এই ৭ কাউন্সিলরের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়লাভ আর কেউ আটকাতে পারবেন না।

ক্যাটাগরি-১ জেলা ও বিভাগ থেকে নির্বাচিত পরিচালকদের জন্য নির্ধারিত। এই ক্যাটাগরি থেকে মোট ১০ পরিচালক নির্বাচিত হয়ে আসবেন। তাদের মধ্যে একজন বিভাগ কোটা থেকে ও অপরজন বিভাগের অন্তর্ভুক্ত জেলা কোটা থেকে নির্বাচিত হবেন। এখানেও ভাগ আছে। যেসব বিভাগে জেলা কম সেগুলোতে বিভাগ ও জেলা মিলিয়েই পরিচালক পদে একটি করে কোটা বরাদ্দ আছে। সিলেট, রংপুর, বরিশাল এই তিন বিভাগে মাত্র একটি করে পরিচালকের পদ। গোপন সমঝোতায় এসব বিভাগ থেকে মাত্র একজন করে প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ফলে তাদের বিজয় একরকম নিশ্চিত। এছাড়াও চট্টগ্রাম ও খুলনা বিভাগেও চার প্রার্থীর বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার মতো কাউকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। এখানেও অলিখিত সমঝোতায় মাঠ একেবারেই পরিষ্কার। সম্ভাব্য বিজয়ীদের মধ্যে সাবেক মেয়র, সাবেক ক্রিকেটার, সাবেক পরিচালক এবং শেখ পরিবারের এক সদস্যও রয়েছেন। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার পথে থাকা এই সাত কাউন্সিলররা হচ্ছেন- আ. জ. ম. নাসির উদ্দিন ও আকরাম খান (চট্টগ্রাম বিভাগ), কাজী ইনাম আহমেদ ও শেখ সোহেল (খুলনা বিভাগ), শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল (সিলেট বিভাগ), অ্যাডভোকোট আনোয়ারুল ইসলাম (রংপুর বিভাগ) এবং আলমগীর খান আলো (বরিশাল বিভাগ)। এই ক্যাটাগরিতে নির্বাচন করে আসতে হবে তিনজনকে। ঢাকা বিভাগ ও রাজশাহী বিভাগে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তবে ময়মনসিংহ বিভাগ থেকে কোনো কাউন্সিলর নেই। সেখানে নির্বাচনও নেই।

পরিচালক ক্যাটাগরি-২ (ক্লাব) থেকে ১২ জন নির্বাচিত হয়ে আসবেন। এখানে ১২ পদের জন্য লড়বেন ১৭ কাউন্সিলর। এখানে ব্যাপক প্রতিদ্বন্দ্বিতা হওয়ার আভাস পাওয়া যাচ্ছে।

ক্যাটাগরি-৩ (পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, সাবেক ক্রিকেটার, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান) থেকে কাউন্সিলরদের ভোটে পরিচালক নির্বাচিত হবেন একজন। এখানে দুইজন প্রার্থী আছেন। বিকেএসপির ও বিসিবির বয়স শ্রেণির সাবেক কোচ নাজমুল আবেদীন ফাহিমকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হচ্ছে জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার ও সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ সুজনের সঙ্গে।

এই ২৩ জন ছাড়াও জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ (এনএসসি) থেকে দুজন পরিচালক আসবেন। এখান থেকে ইতিমধ্যে জালাল ইউনুস ও আহমেদ সাজ্জাদুল আলম ববি মনোনীত হয়েছেন।

মনোনয়নপত্র বাছাই ও প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হবে ২৮ সেপ্টেম্বর। কারও মনোনয়নপত্র বাতিল হলে সে বিষয়ে আপিল গ্রহণ ও শুনানি হবে ২৯ সেপ্টেম্বর। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার ও প্রার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে ৩০ সেপ্টেম্বর। এর ছয় দিন পর, ৬ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে নির্বাচন। নির্বাচনের পরের দিন ৭ অক্টোবর চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করা হবে।

/টিএন/

 

 

 

Comments are closed.