rockland bd

নেত্রকোনায় হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

0

খলিলুর রহমান শেখ, নেত্রকোনা জেলা প্রতিনিধি
জেলার কেন্দুয়া উপজেলার রামনগর গ্রামের এমদাদুল ওরফে এনামুলকে (১৯) হত্যার অভিযোগে একই গ্রামের হিরণ কবীর ওরফে হিরুকে (১৮) যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও দুই বছরের সশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে। নেত্রকোনার অতিরিক্ত দায়রা জজ আফিয়া বেগম আসামির উপস্থিতিতে বুধবার এ রায় দেন।
আদালত সূত্রে জানা গেছে, জেলার কেন্দুয়া উপজেলার রামনগর গ্রামের আবুল মিয়ার ছেলে এমদাদুল ওরফে এনামুল একই গ্রামের জেসমিন আক্তারের প্রেমিক ছিল। পরবর্তীতে একই গ্রামের হিরণ কবীর ওরফে হিরুর সাথে জেসমিন আক্তারের প্রেমের সম্পর্ক হয়। এ নিয়ে দুই প্রেমিকের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। এরই জের ধরে ২০১১ সালের ১২ ফেব্রুয়ারী জেসমিন আক্তারের পরামর্শে প্রেমিক হিরণ কবীর ওরফে হিরু জুতা কেনার কথা বলে পুরনো প্রেমিক এমদাদুল ওরফে এনামুলকে মোটর সাইকেলে করে নেত্রকোনা যাবে বলে নিয়ে যায়। জুতা না কিনে ওইদিন সন্ধ্যায় উপজেলার রামপুর বাজারে নাস্তা করে ও রাতে জেসমিন আক্তারের যোগসাজসে এমদাদুলকে হত্যা করে ওই গ্রামের তালে নেয়াজের ধান ক্ষেতে লাশ ফেলে রাখে। দুদিন পর ১৪ ফেব্রুয়ারী নিহতের বাবা মো. আবুল মিয়া বাদী হয়ে হিরণ কবীর ওরফে হিরু, জেসমিন আক্তারসহ তিনজনকে আসামি করে কেন্দুয়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ ওই বছরের ৩১ মার্চ আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। বিজ্ঞ বিচারক আসামি হিরণ কবীর ওরফে হিরুর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমানীত হওয়ায় উপরোক্ত রায় প্রদান করেন। অন্যদিকে অন্য দুই আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমানীত হওয়ায় তাদেরকে হত্যার দায় থেকে খালাস প্রদান করা হয়। সরকার পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট কমলেশ কুমার চৌধুরী। আসামি পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট সাইদ ওয়াজিবুল হক ও অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান এবং স্টেট ডিফেন্স অ্যাডভোকেট পূরবী কুন্ডু।
রাকিব/৩০/০১/২০১৯

Comments are closed.