rockland bd

কাশ্মিরে ভারতীয় বাহিনীর গুলিতে ৫ বেসামরিকসহ নিহত ৮

0

বিদেশ, বাংলাটুডে টোয়েন্টিফোর ডটকম


ভারত অধিকৃত জম্মু-কাশ্মিরের কুলগাম জেলায় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে পাঁচ বেসামরিক ব্যক্তিসহ আট জন নিহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে তিন হিজবুল মুজাহিদিন সদস্য রয়েছে। ওই ঘটনায় সেনাবাহিনীর দুই সদস্য আহত হয়েছে। বার্তা সংস্থা এপি ও অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম এ খবর দেয়।

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের রাজধানী শ্রীনগরে নিরাপত্তা বাহিনীকে লক্ষ্য করে পাথর ছুড়ছে বিক্ষোভকারীরা, ছবি: ইপিএ


কর্মকর্তা ও অধিবাসীরা জানান, বিদ্রোহীদের উপস্থিতির কথা জানতে পেরে সেনাবাহিনী, আধাসামরিক বাহিনী সিআরপিএফ ও পুলিশের স্পেশাল অপারেশন গ্রুপের সদস্যরা দক্ষিণ কাশ্মীরের কুলগ্রাম এলাকা ঘেরাও ও তল্লাশি অভিযান শুরু করে। এসময় লুকিয়ে থাকা বিদ্রোহীদের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর বন্দুকযুদ্ধ শুরু হলে তিন বিদ্রোহী নিহত ও দুজন সেনা সদস্য আহত হয়। প্রায় সাত ঘণ্টা বন্দুকযুদ্ধ চলে।

এলাকাবাসী অভিযোগ করেন বিদ্রোহিদের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধ চলার সময় সেনাবাহিনী একটি বেসামরিক বাড়ি বিস্ফোরকের সাহায্যে উড়িয়ে দেয়। এতে বেসামরিক ব্যক্তিরা নিহত হন।

সেনা অভিযান শুরু হলে ভারত-বিরোধী বিক্ষোভকারীরা সেখানে পৌছানোর চেষ্টা করে। তারা সেনাবাহিনীর ওপর পাথর ছুড়ে যেন বিদ্রোহীরা পালিয়ে যেতে পারে। সরকারি বাহিনী ছড়ড়া গুলি ও টিয়ারগ্যাস ছুড়ে বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা চালায়। এতে ৩৫ জনের মতো আহত হয়। রবিবার সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে জেলায় মোবাইল ও ইন্টারনেট পরিসেবা স্থগিত করা হয়েছে।

এদিকে, বেসামরিক ব্যক্তি নিহত হওয়ার প্রতিবাদে আজ সোমবার (২২ অক্টোবর) যৌথ প্রতিরোধ নেতৃত্বের পক্ষ থেকে কাশ্মির উপত্যকায় সর্বাত্মক বনধের ডাক দেয়া হয়েছে। হুররিয়াত কনফারেন্সের একাংশের চেয়ারম্যান মীরওয়াইজ ওমর ফারুক ওই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। কাশ্মিরের বিদ্রোহীরা মূলত সেখানে ভারতীয় সেনাবাহিনীর উপস্থিতির বিরুদ্ধে লড়ছে।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে তরুণ কাশ্মিরিরা বিদ্রোহীদের প্রতি প্রকাশ্যে সংহতি প্রকাশ করছে। নিরাপত্তা বাহিনী যখন বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করে তখন তরুণরা সড়কে বিক্ষোভ করে সেনবাহিনীকে ব্যস্ত রাখে যেন বিদ্রোহীরা নিরাপদে সরে যেতে পারে।

১৯৮৯ সাল থেকে কাশ্মিরের বিদ্রোহীরা ভারতীয় দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে লড়ছে। বিদ্রোহীদের অস্ত্র-প্রশিক্ষণ দেয়ার জন্য পাকিস্তানকে দায়ি করে ভারত। তবে পাকিস্তান এই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে। কাশ্মিরে গণঅভ্যুথান শুরুর পর থেকে বিক্ষোভ ও নিরাপত্তা বাহিনীর দমন অভিযানে প্রায় ৭০,০০০ মানুষ নিহত হয়েছে।

আর এইচ

Comments are closed.