rockland bd

অবশেষে হাসপাতালে চিকিৎসা পেতে যাচ্ছেন খালেদা জিয়া

0

ডেস্ক প্রতিবেদন, ঢাকা-


বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া গেঁটে বাত ও নিয়ন্ত্রণহীন ডায়াবেটিকসহ বিভিন্ন জটিলতায় ভুগছেন বলে আজ সোমবার জানিয়েছে তার উন্নত চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) গঠিত পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড।

দুপুর ২টার দিকে বিএসএমএমইউ পরিচালকের কক্ষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে মেডিকেল বোর্ডের প্রধান ডা. আব্দুল জলিল চৌধুরী বলেন, ‘খালেদা জিয়ার চিকিৎসা অনেক কিছুর ওপর নির্ভর করছে। তার ডায়াবেটিকসহ অন্যান্য জটিলতা রয়েছে। এসব নিয়ন্ত্রণে আনার পরই তার মূল চিকিৎসা শুরু হবে।’

গেঁটে বাতকে বিএনপি প্রধানের মূল সমস্যা আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, খালেদা জিয়া ৩০ বছর ধরে গেঁটে বাতে ভুগছেন এবং দিন দিন তা বাড়ছে। ‘তার বা হাত ইতিমধ্যে বাঁকা হয়ে গেছে, যেটাকে আমরা বলি ফ্রোজেন সোলডার। তার হাতে, ঘাড়ে ও বা কোমরের জয়েন্টে ব্যথা রয়েছে। সবকিছু মিলিয়ে তার বাতের জটিলতা বেড়েছে।’

খালেদা জিয়া গত দুই বছর ধরে ডায়াবেটিসে ভুগছেন জানিয়ে মেডিকেল বোর্ড প্রধান বলেন, সম্প্রতি তার জ্বর হয়েছিল এবং সুগারের মাত্রা কমে যাচ্ছিল। ‘তার অ্যাজমার সমস্যাও আছে, যদিও সেটা প্রকট না।’

‘বিএনপি প্রধানকে এখন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে এবং সে সব প্রতিবেদনের ভিত্তিতে মূল চিকিৎসা শুরু করা হবে,’ যোগ করেন ডা. আব্দুল জলিল। তবে খালেদা জিয়ার মূল চিকিৎসা শুরু করতে কত সময় লাগবে তা নির্দিষ্ট করে বলতে পারেননি তিনি।

মেডিকেল বোর্ডের অন্য সদস্য- রিউমেটোলজি বিভাগের অধ্যাপক সৈয়দ আতিকুল হক ও কার্ডিওলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. তানজিমা পারভীন এসময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য শনিবার বিকালে পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে বিএসএমএমইউতে স্থানান্তরের পর সেখানে ভর্তি করা হয়।

এর আগে খালেদা জিয়াকে অবিলম্বে বিএসএমএমইউতে ভর্তি এবং তার চিকিৎসায় নতুন করে পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করতে বৃহস্পতিবার সরকারকে নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট।

গত বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের দেওয়া নির্দেশনা অনুযায়ী, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য মোট পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়।

ইউনাইটেড বা বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা নিতে নির্দেশনা চেয়ে গত ৯ সেপ্টেম্বর খালেদা জিয়া রিট করেন। আবেদনে খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য একটি বিশেষ বোর্ড গঠন করার নির্দেশনাসহ তাঁর চিকিৎসাসেবা-সংক্রান্ত যাবতীয় নথি দাখিলের নির্দেশনা চাওয়া হয়।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় গঠিত পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড পুরান ঢাকায় নাজিমুদ্দিন রোডের পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারে গিয়ে খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন। পরে গত ৪ অক্টোবর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউতে ভর্তি করতে ও চিকিৎসাসেবা শুরু করতে পাঁচ সদস্যের একটি বোর্ড গঠন করার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডাদেশ দেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫। এরপর থেকে খালেদা জিয়া নাজিমুদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন। ওই মামলায় বিচারিক আদালতের রায়ের পাঁচ মাসের মাথায় ১২ জুলাই আপিলের ওপর শুনানি শুরু হয়।

বাংলাটুডে২৪/আর এইচ

Comments are closed.